জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্রের বক্তব্য নিয়ে ভুয়া প্রচারণা

জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিখ আল জাজিরার প্রতিবেদনে উঠা অভিযোগ নিয়ে কর্তৃপক্ষকে তদন্ত করার আহবান জানান।

সম্প্রতি কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল জাজিরা 'অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টারস মেন' শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করার পর এ নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। প্রতিবেদনটিতে সেনাবাহিনীর উর্ধ্বতন পর্যায়ের কর্মকর্তা নিয়ে স্পর্শকাতর তথ্য দেয়া হয় এবং এর প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ সরকার ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আন্ত:বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি প্রদান করা হয়। গত ৪ ফেব্রুয়ারী জাতিসংঘের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্রকে এক সাংবাদিক এ ব্যাপারে প্রশ্ন করলে তিনি প্রাসঙ্গিক মন্তব্য করেন। কিন্তু সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে কিছু পোস্টে দাবি করা হচ্ছে যে মহাসচিবের মুখপাত্র বাংলাদেশ নিয়ে কিছু বলেন নি। পোস্টের সাথে জাতিসংঘের ওয়েবসাইটের একটি লিংকও সংযুক্ত করা আছে।

আর্কাইভ করা আছে এখানে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে যে সামাজিক মাধ্যমে করা দাবিটি আসলে সত্য নয়, অর্থাৎ জাতিসংঘের মহাসচিবের মুখপাত্রের দেয়া বক্তব্য বানোয়াট নয়। বরং গত ৪ ফেব্রুয়ারী জাতিসংঘের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে দুর্নীতির অভিযোগ ও জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনের জন্য সেনাবাহিনীর গুপ্তচরবৃত্তির সরঞ্জাম কেনার দাবির বিষয়ে আল-জাজিরার অনুসন্ধানে উঠে আসা তথ্যের ব্যাপারে জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্রের মন্তব্য জানতে চাওয়া হয়। জবাবে জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র বলেন, বাংলাদেশের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ-সংক্রান্ত আল–জাজিরার অনুসন্ধানী প্রতিবেদন সম্পর্কে তাঁরা অবগত আছেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তি সম্পর্কেও তাঁরা অবগত। দুর্নীতির অভিযোগগুলো একটি গুরুতর বিষয়। এই অভিযোগ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের তদন্ত করা উচিত।
মহাসচিবের মুখপাত্রের এই বক্তব্যের ভিডিও ক্লিপ জাতিসংঘের ওয়েব টিভিতে দেয়া আছে। দেখুন এখানেক্লিপটির ৩৬ মিনিট ৪০ সেকেন্ড থেকে ৩৮ মিনিট ৪৫ সেকেন্ড পর্যন্ত সময়ের মধ্যে বক্তব্যটি পাওয়া যাবে।

জাতিসংঘের ইউটিউব চ্যানেল থেকেও বক্তব্যটি আপলোড করা হয়েছে।

জাতিসংঘের ওয়েবসাইটে বক্তব্যটির ট্রান্সক্রাইব করা অংশ দেখুন এখানে


দেশের মূলধারার সংবাদ মাধ্যমে এ সংক্রান্ত খবর দেখুন এখানে এখানে

আর ফেসবুক পোস্টের সাথে সংযুক্ত লিংকটি প্রকৃতপক্ষে ওই ব্রিফিং অনুষ্ঠানের চুম্বক অংশ নিয়ে তৈরী প্রতিবেদনের। এতে পুরো অনুষ্ঠানের বিষয়াদি সংযুক্ত করা হয়নি। এর ফলে সাংবাদিকের প্রশ্নের প্রেক্ষিতে মহাসচিবের মুখপাত্রের প্রত্যুত্তরও বাদ পড়েছে।

Claim Review :   বাংলাদেশ নিয়ে জাতিসংঘের ব্রিফিংয়ে কিছু বলা হয়নি
Claimed By :  Facebook posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story