মালয়েশিয়ার নির্যাতনের ভিডিওকে নরসিংদীর বলে প্রচার

মালয়েশিয়া-ভিত্তিক একাধিক সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা যায়, একটি রুমে দুই ব্যক্তিকে নির্যাতন করার ভিডিওটি মালয়েশিয়ার কুয়ালামপুরের।

সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে "নরসিংদীতে কিস্তির টাকা না দিতে পারায় অফিসে ডেকে নিয়ে নির্যাতন।" শিরোনামে একটি ভিডিও ব্যাপকভাবে ভাইরাল হতে দেখা গেছে। দেখুন এমন কিছু লিংক এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ৫ মে 'সাংবাদিক পারভেজ আহমদ' নামের আইডি থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। ভিডিওটিতে দুজন ব্যক্তিকে একটি ছোট রুমে আটকে রেখে মারধর করতে দেখা যায়। পোস্টের ক্যাপশনে দাবি করা হচ্ছে, ভিডিওটি বাংলাদেশের নরসিংদী জেলার। কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পারার জন্যেই তাদের মারধর করা হচ্ছে। দেখুন স্ক্রিনশট--

পোস্টটির আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে

আরেকটি স্ক্রিনশট দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এই লিংকে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশের অনুসন্ধানে দেখা গেছে ভিডিওটির ক্যাপশনে করা দাবিটি বিভ্রান্তিকর। ভিডিওটি বাংলাদেশের নরসিংদী জেলার নয়, বরং মালয়েশিয়ার।বিস্তারিত সার্চ করে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে এই সংক্রান্ত খবর পাওয়া গেছে।

মালয়েশিয়া-ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম 'কসমো ডটকম' এ ছবিসহ এ ব্যাপারে একটি খবর প্রকাশ করা হয়েছে। গত ৩০ এপ্রিল মালয় ভাষায় প্রকাশিত এই প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, দুই ব্যক্তিকে নির্যাতন করার ঘটনাটি ঘটেছে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের চৌ-কিট এলাকার কোনো একটি অফিসে। দেখুন--

প্রতিবেদনটি দেখুন এখানে

প্রতিবেদনটিতে ডাং ওয়াঙ্গি জেলা পুলিশ প্রধান এসিপি জাইনাল আব্দুল্লাহর বরাতে আরো জানা যায়, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট অপরাধ বিভাগে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া এই বিষয়ে তদন্ত চলছে বলেও সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়। যদিও এই প্রতিবেদনটি লেখা পর্যন্ত অভিযুক্তদের গ্রেফতারের কোনো সংবাদ পাওয়া যায়নি।

এ সংক্রান্ত মালয় মেইলের একটি প্রতিবেদন দেখুন এখানে

তবে এর আগে একই ভিডিওকে সম্প্রতি মালয়েশিয়ায় পুলিশের হেফাজতে মৃত তামিল নাগরিক এ গণপতির ( A. Ganapathy) নির্যাতনের ভিডিও বলেও সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হয়। পরবর্তীতে স্থানীয় গোম্বাক জেলা পুলিশ সেই দাবি নাকচ করে দেয়। গত ২৯ এপ্রিল মালয়েশিয়ার একটি অনলাইনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম 'দ্য ভাইবস' এ সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট প্রকাশ করে।

প্রতিবেদনটি পড়ুন এখানে

সুতরাং একাধিক সংবাদমাধ্যমের তথ্যানুযায়ী, ভাইরাল হওয়া মারধরের ভিডিও এর ঘটনাটি ঘটেছে মালয়েশিয়ায়। ফলে সেটিকে বাংলাদেশের নরসিংদীর ঘটনা বলে দাবি করা বিভ্রান্তিকর।

Claim Review :   নরসিংদীতে কিস্তির টাকার জন্য অফিসে ডেকে এনে নির্যাতন!
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story