মুসকানকে উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের পুরস্কার দেয়ার খবরটি ভিত্তিহীন

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, কোন সুত্র ছাড়াই কর্নাটকের মুসকানকে কিম জং উনের পুরস্কার দেয়ার ভিত্তিহীন খবর প্রচার করা হচ্ছে।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একটি ভিডিওতে দাবি করা হচ্ছে, ভারতের কর্নাটকে কলেজ প্রাঙ্গনে হিন্দু তরুণদের সাম্প্রদায়িক মিছিলের বিপরীতে 'আল্লাহু আকবর' স্লোগান দিয়ে আলোচিত তরুণী মুসকান খানের প্রশংসা করে কোটি টাকা পুরস্কার দিয়েছে, উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। দেখুন এমন দুটি লিংক এখানে এবং এখানে

গত ১২ ফেব্রুয়ারি 'নিশ্চুপ - 𝙎 𝙞 𝙡 𝙚 𝙣 𝙩 シ︎ ' নামের ফেসবুক পেজ থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করে বলা হয়, 'এইমাত্র সাহসী মুসকান খানকে নিয়ে একি বললেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন I হিজাবের নতুন আইন I' ভিডিওতে দাবি করা হচ্ছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাব পরার পক্ষে স্লোগান দেয়া মুসকান খানের সাহসিকতার প্রশংসা করেছেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। ভিডিওতে আরো দাবি করা হয়, মুসকানকে কোটি টাকা আর্থিক পুরস্কারও দিয়েছেন তিনি। এছাড়া সেখানে বলা হচ্ছে, হিজাব পরিধানের বিষয়ে নতুন আইন হচ্ছে। ভিডিওটির স্ক্রিনশট দেখুন--


ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, ভিডিওটিতে একাধিক ভিত্তিহীন এবং বিভ্রান্তিকর দাবি আছে। ভিডিওটির প্রথমাংশে দাবি করা হচ্ছে, উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন মুসকানের প্রশংসা করে আর্থিক পুরস্কার দিয়েছেন। এরকম কোনো পুরস্কারের ঘটনা ঘটলে এটি অন্তত ভারতের মিডিয়ায় প্রচারিত হত। কিন্তু সার্চ করে কোথাও এ সংক্রান্ত কোনো তথ্য কোনো সংবাদমাধ্যমে পাওয়া যায়নি। উত্তর কোরিয়া এবং ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমে খোঁজ করেও এ ব্যাপারে কিছুর খোঁজ পাওয়া যায়নি। এর বাইরে উত্তর কোরিয়ার সরকারি প্রচারমাধ্যম 'kcnawatch.org' তেও এরকম কিছু পাওয়া যায়নি।

এছাড়া, কিম জং উনের মত ভারতের একাধিক জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বের সাথে একই গুজব যুক্ত করে প্রচার করা হয়েছিল। ভারতে ফেসবুক ও টুইটারের একাধিক পোস্টে দাবি করা হয়, কর্নাটকের মুসকানের প্রতিবাদে খুশি হয়ে তার জন্য আর্থিক পুরস্কার ঘোষণা করেছেন নায়ক শাহরুখ খান এবং সালমান খান। পরবর্তীতে ভারতের একাধিক তথ্য যাচাই সংস্থা এটিকে নিছক গুজব হিসেবে চিহ্নিত করেছে। দেখুন এমন একটি প্রতিবেদন--


ফ্যাক্ট চেক প্রতিবেদনটি দেখুন এখানে

ভিডিওটির আরেকটি অংশে দাবি করা হয়, ভারতে হিজাব সংক্রান্ত নতুন আইন হচ্ছে। কিন্তু সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কর্নাটকের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হিজাব পরার বিষয়ে কোনো ঘোষণা বা সিদ্ধান্ত এখন পর্যন্ত দেয়া হয়নি। একাধিক পিটিশনের প্রেক্ষিতে চলা এই শুনানি আগামিকাল (১৮ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত চলবে। তারপরে নিয়মমাফিকভাবে আদালত থেকে সিদ্ধান্ত আসতে পারে। দেখুন--


খবরটি দেখুন এখানে।

অর্থাৎ এই ভিডিওটিতে মুসকানের জন্যে কিম জং উনের পুরস্কারসহ একাধিক বিভ্রান্তিকর তথ্য আছে।

Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.