এটি ভারতের 'মসজিদে শুকর ঢুকিয়ে দেয়ার' ছবি নয়

ভারতে একটি মসজিদের ভেতরে হিন্দুরা শুকর ছেড়ে দিয়েছে- এমন ভুয়া দাবি করে কিছু ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়েছে।

ফেসবুকে কয়েকটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে মেঝেতে লাল কার্পেটমোড়া একটি ঘরে একটি প্রাণি ঢুকে পড়েছে এবং সেই ঘরে থাকা কিছু মানুষ ছুটোছুটি করছেন।

Fatema Akter নামে একটি ফেসবুক আইডিতে গত ৫ মার্চ (২০২০) ছবিগুলো পোস্ট করে তাতে নিম্নোক্ত ক্যাপশন দেয়া হয়েছে--

"ভারতে একটি মসজিদের বিতরে হিন্দুরা মিলে শুওর ছেরে দিয় সকলেই এর পতিবাদ করুন।" (পোস্টের বানানরীতি অক্ষুন্ন রাখা হয়েছে)।

এছাড়াও "হাফছা বেগম" নামক ফেসবুক পেইজ, "শায়খুল হাদিস আল্লামা মামুনুল হক (দা: বা:) সমর্থক গোষ্ঠি" নামক গ্রুপে ছবিগুলো অবিকল একই ক্যাপশনে পোস্ট করা হয়েছে।

Fatema Akter নামক আইডি থেকে পোস্ট করা ছবিগুলো (৭ মার্চ পর্যন্ত) ৩৮ হাজার বার 'শেয়ার' হয়েছে। এছাড়া অন্য পোস্টগুলোতেও কয়েক হাজার মানুষ রিয়েকশন দিয়েছেন ও শেয়ার করেছেন।

যদিও গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যাচ্ছে, ছবিগুলো ভারতের কোনো মসজিদের নয়।

প্রকৃতপক্ষে এটি মালয়েশিয়ার ছবি। ২০১৮ সালের ৭ মার্চের ঘটনা এটি। মুসল্লিরা নামাজরত অবস্থায় মালয়েশিয়ার Sungai Plong (কোনো পত্রিকায় নামটি লেখা হয়েছে Buloh) এলাকায় একটি বুনো শূকর মসজিদে ঢুকে পড়ে, এবং একজনকে আহতও করে। পরে স্থানীয়রা গুলি করে শূকরটিকে নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এ বিষয়ে ৭ মার্চ ২০১৮ তারিখে একই ছবি ব্যবহার করে মালয়েশিয়ান সংবাদমাধ্যম 'নিউ স্ট্রেইট টাইমস' এর প্রতিবেদনের শিরোনাম ছিলো "Man injured in wild boar attack at Sungai Buloh mosque"।


এছাড়াও পশ্চিমা সংবাদমাধ্যমেও এ সংক্রান্ত খবর প্রকাশিত হয়েছিল। যেমন ডেইলি মেইল এর প্রতিবেদন দেখুন এই লিংকে: https://dailym.ai/2La2OeW

Updated On: 2020-04-05T15:12:07+05:30
Claim Review :  ভারতে একটি মসজিদের ভেতরে হিন্দুরা শুকর ছেড়ে দিয়েছে
Claimed By :  Facebook posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story