বিমান দুর্ঘটনার ভিডিওটি ৪ বছর পুরোনো

ভিডিওটি ২০১৮ সালে পাপুয়া নিউগিনিতে একটি বিমান উড্ডয়নের সময় পাশের হ্রদে ছিটকে পড়লে উদ্ধার অভিযানের সময় ধারণ করা।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি ও পেজ থেকে একটি বিমান দুর্ঘটনার ভিডিও শেয়ার করে করা হচ্ছে। ভিডিওতে একদল লোককে পানিতে ভাসমান একটি দুর্ঘটনা কবলিত বিমান থেকে যাত্রীদের উদ্ধার করতে দেখা যায়। এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ১২ মে 'PAYAL Gametube' নামের ফেসবুক পেজ থেকে ভিডিওটি শেয়ার কর ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, "একটুর জন্য বেঁচে গেলো শত শত প্রাণ - দেখুন ভিডিও সহ" । স্ক্রিনশট দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এখানে

ফেসবুক পোস্টের নিচে বহু মন্তব্যকারী ভিডিওটিকে সাম্প্রতিক মনে করে মন্তব্য করেছেন। স্ক্রিনশট দেখুন--


ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, ভিডিওটি সাম্প্রতিক নয় বরং ৪ বছর পুরোনো পাপুয়া নিউগিনির একটি বিমান দুর্ঘটনার। মাইক্রোনেশিয়ার চুক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পাশে দ্য এয়ার নিউগিনির একটি উড়োজাহাজ পার্শ্ববর্তী উপহ্রদে ছিটকে পড়লে কাছাকাছি থাকা যুক্তরাষ্ট্রের নাবিকরা উদ্ধারে এগিয়ে আসে, ভিডিওটি সে সময় ধারণ করা।

ভিডিওটি থেকে কি-ফ্রেম কেটে রিভার্স ইমেজ সার্চ করলে, মার্কিন সংবাদমাধ্যম ইউএস টুডে-এর "Sailors help Air Niugini flight passengers after crash" শিরোনামে ২০১৮ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত একটি ভিডিও মূল ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া গেছে। ভিডিওর বিবরণে বলা হয়, চুক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পাশে একটু উপহ্রদে পাপুয়া নিউগিনির দ্য এয়ার নিউগিনির Air Niugini flight PX56 উড়োজাহাজটি ছিটকে পড়লে মার্কিন নাবিকরা উদ্ধার অভিযানে এগিয়ে আসে, ভিডিওটি ঐ উদ্ধার অভিযানের। ভিডিওটি দেখুন--

কি-ওয়ার্ড ধরে সার্চ করার পর, ভয়েস অব আমেরিকার ইউটিউব চ্যানেলেও একই ঘটনার ভিডিও খুঁজে পাওয়া গেছে।

ইউএস টুডের ভিডিও থেকে নেয়া স্ক্রিনশট এবং ফেসবুক ভিডিওর স্ক্রিনশটের পাশাপাশি তুলনা দেখুন--

ইউএস টুডের ভিডিও থেকে নেয়া স্ক্রিনশট (বামে) এবং ফেসবুক ভিডিওর স্ক্রিনশট (ডান) দেখুন পাশাপাশি

অর্থাৎ ভিডিওটি ৪ বছর পুরোনো একই বিমান দুর্ঘটনার।

সার্চ করে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর মাইক্রোনেশিয়ার পোনাপে দ্বীপ থেকে পাপুয়া নিউগিনির রাজধানী মোরসবির উদ্দেশে উড্ডয়নের চেষ্টা করে পাপুয়া নিউগিনির দ্য এয়ার নিউগিনির একটি বিমান ব্যর্থ হয়ে পার্শ্ববর্তী উপহ্রদে ছিটকে পড়ে। এই ঘটনা সম্পর্কিত আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে-এর প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট দেখুন--

খবরটি পড়ুন এখানে

খবরটি তৎকালে দেশীয় সংবাদমাধ্যম দৈনিক প্রথম আলোর অনলাইন সংস্করণেও প্রকাশিত হয়েছিল।

সুতরাং ৪ বছরের পুরোনো একটি বিমান দুর্ঘটনার ভিডিও অপ্রাসঙ্গিকভাবে চটকদার বিবরণে প্রচার করা হচ্ছে সামাজিক মাধ্যমে, যা বিভ্রান্তিকর।

Updated On: 2022-05-15T12:17:28+05:30
Claim :   একটুর জন্য বেঁচে গেলো শত শত প্রাণ - দেখুন ভিডিও সহ
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.