ছবিতে দৃশ্যমান মাদকসহ গ্রেফতার ব্যক্তি বাংলাদেশি নন

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, ছবিতে দৃশ্যমান পাকিস্তানের এই ব্যক্তি করাচিতে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে মাদকসহ গ্রেফতার হন।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি, পেজ ও গ্রুপে একটি ছবি পোস্ট করে বলা হচ্ছে, ছবিতে থাকা দাঁড়ি, টুপি পরিহিত এক ব্যক্তি মাদক বিক্রি করতে গিয়ে আইনশৃংখলা বাহিনীর কাছে গ্রেফতার হয়েছেন। এরকম কয়েকটি পোস্ট দেখুন এখানে, এখানেএখানে

গত ২০ জুলাই 'সনাতন ধর্ম এবং শ্রীকৃষ্ণ' নামের একটি ফেসবুক পেজে একটি ছবি পোস্ট করে লেখা হয়, "পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়া ভাইটি মধু বিক্রি করে পেট চালায় 😂 আর কোস্টগার্ডের সদস্যরা তাঁকে ধরে আইনের হাতে তুলে দিলো 😪😪 এগুলা কোন কথা ?????? বিঃদ্রঃ কেউ মদ ভাববেন না, মদ হারাম। তাই আরাম করে বললাম মধু😄"। অর্থাৎ দাবি করা হচ্ছে বাংলাদেশের কোস্টগার্ড তাদের মাদক সহ গ্রেফতার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। পোস্টটির স্ক্রিনশট দেখুন--


ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, ছবির ব্যক্তি বাংলাদেশের নন বরং পাকিস্তানের নাগরিক। ২০১৯ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর করাচির দুজন কাস্টমস কর্মকর্তা মাদক ব্যবসায়ে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হন, তন্মধ্যে ছবির ব্যক্তি একজন।

ছবিটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করে 'arynews.tv' নামে পাকিস্তানের একটি সংবাদ পোর্টালে 'CUSTOMS EMPLOYEES INVOLVED IN SELLING 'SEIZED' LIQUOR ARRESTED IN KARACHI' (জব্দ হওয়া মাদক বিক্রিতে যুক্ত থাকায় করাচিতে কাস্টমস কর্মকর্তা গ্রেফতার) শিরোনামে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ''Police on Friday claimed to have arrested two customs department workers for selling liquor seized by the department in Karachi, ARY News reported.'' (করাচির কাস্টমস বিভাগের জব্দ করা মাদক বিক্রির সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ দুজন কাস্টমস কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করে')। স্ক্রিনশট দেখুন--

প্রতিবেদনটি দেখুন এখানে

আরো সার্চ করে 'e-syndicate' নামে একটি নিউজ এজেন্সির ওয়েবসাইটে ''Liquor Bottles recovered from Customs Warehouse Security Guards'' শিরোনামে একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, আলোচ্য ছবির ব্যক্তিসহ গ্রেফতারকৃত দুজনসহ আরো কয়েকজন করাচির কাস্টমসের ওয়্যারহাউজ থেকে জব্দকৃত মাদক চুরি ও বিক্রি করেন। স্ক্রিনশট দেখুন--

প্রতিবেদনটি দেখুন এখানে

অর্থ্যাৎ ছবিতে দৃশ্যমান মাদকসহ আটক ওই ব্যক্তি পাকিস্তানের কাস্টমসে কর্মরত একজন ব্যক্তি, যিনি মাদক বিক্রির সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হন।

সুতরাং ২০১৯ সালে পাকিস্তানের করাচিতে দাঁড়ি টুপি পরা এক ব্যক্তির মাদক বিক্রির সাথে যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়ার ছবিকে বাংলাদেশি হিসেবে প্রচার করা হচ্ছে ফেসবুকে, যা বিভ্রান্তিকর।

Claim :   পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়া ভাইটি মধু বিক্রি করে পেট চালায় 😂 কেউ মদ ভাববেন না, মদ হারাম। তাই আরাম করে বললাম মধু😄
Claimed By :  Facebook post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.