পূর্ণিমার গ্রিন ইউনিভার্সিটির শিক্ষক হবার খবরটি বিভ্রান্তিকর

৫ বছর আগে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম ও মিডিয়া সংশ্লিষ্ট একটি বিভাগে বক্তব্য রাখার জন্য আমন্ত্রিত হয়েছিলেন এই অভিনেত্রী।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক পেজ থেকে অনলাইন পোর্টালের লিংক শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গ্রিন ইউনিভার্সিটির শিক্ষক হয়েছেন চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা। এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ১৫ এপ্রিল 'Pordar Opare' নামের ফেসবুক পেজ থেকে অখ্যাত একটি অনলাইন পোর্টালের লিংক শেয়ার করে লেখা হয়, "গ্রিন ইউনিভার্সিটির শিক্ষক হলেন পূর্ণিমা"। স্ক্রিনশট দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এখানে

হুবহু একই শিরোনামে প্রকাশিত ওই খবরটির ডেটলাইন কোনো তারিখ উল্লেখ নেই। খবরের বিস্তারিত অংশে বলা হয়েছে, "রাজধানীর গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে শিক্ষক হিসেবে যোগ দিয়েছেন চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা। সেখানে ফিল্ম-টেলিভিশন ও ডিজিটাল মিডিয়া বিভাগে অভিনয় বিষয়ে ক্লাস নেবেন তিনি। সোমবার এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক চুক্তি সাক্ষর করেছেন পূর্ণিমা। পূর্ণিমা ছাড়াও সেখানে শিক্ষক হিসেবে যোগ দিয়েছেন, অভিনেতা ফেরদৌস, গাজী রাকায়েত, জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, নাট্যকার আনন জামান।" অর্থাৎ ফেসবুকে পোস্ট করার দিনক্ষণ ও বিষয়বস্তু দেখে স্বাভাবিকভাবে খবরটি পাঠকের কাছে সাম্প্রতিক মনে হতে পারে। স্ক্রিনশট দেখুন--

খবরটি পড়ুন এখানে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, খবরটি ৫ বছর পুরোনো আর পূর্ণিমার শিক্ষক হবার দাবিও বিভ্রান্তিকর। মূলত একটি চুক্তির আওয়তায় গ্রিন ইউনিভার্সিটি ফিল্ম-টেলিভিশন ও ডিজিটাল মিডিয়া বিভাগ একটি ক্লাস নিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী।

কি-ওয়ার্ড ধরে সার্চ করার পর, অনলাইন ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রাইজিংবিডি ডটকমে "গ্রিন ইউনিভার্সিটির শিক্ষক হলেন ফেরদৌস, পূর্ণিমা" একটি খবর খুঁজে পাওয়া যায়। খবরে "রাজধানীর গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে শিক্ষক হিসেবে যোগ দিয়েছেন চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা, অভিনেতা ফেরদৌস, গাজী রাকায়েত, জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায় ও নাট্যকার আনন জামান। গত সোমবার এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক চুক্তি স্বাক্ষর করেন তারা। এ শিক্ষকগণ ফিল্ম-টেলিভিশন ও ডিজিটাল মিডিয়া বিভাগে অভিনয় বিষয়ে ক্লাস নেবেন। জানা গেছে, গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে খণ্ডকালীন শিক্ষকতা করেন নির্মাতা জাকির হোসেন রাজু। তিনি প্রস্তাব দেন ইউনিভার্সিটিতে কিছু বেসিক কোর্স চালু করতে। এই প্রস্তাবে সায় দিয়ে গ্রিন ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ কয়েকটি কোর্স চালুর উদ্যোগ নেয়।" স্ক্রিনশট দেখুন--

খবরটি পড়ুন এখানে

রাইজিংবিডি ডটকমে প্রকাশিত এই প্রতিবেদনটিকেই সামান্য পরিবর্তনসহ কপি করে আলোচ্য অনলাইন পোর্টালতে প্রকাশ করা হয়েছে। অনলাইন পোর্টালের খবর ও মূল খবরের পাশাপাশি স্ক্রিনশট দেখুন--

রাইজিংবিডি ডটকমে প্রকাশিত খবর (বামে) এবং ভাইরাল অনলাইন পোর্টালের খবর (ডানে) দেখুন পাশাপাশি

সার্চ করার পর, অনলাইন সংবাদমাধ্যম ঢাকা পোস্টে ২০২১ সালের ২৭ আগস্ট "গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে সাংবাদিকতায় পড়াশোনা" শিরোনামে একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গ্রিন ইউনিভার্সিটি ২০০৩ সালে 'ফিল্ম, টেলিভিশন ও ডিজিটাল মিডিয়া' নামে একটি বিভাগ চালু করে পরে যা নাম পরিবর্তন করে 'জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া কমিউনিকেশন (জেএমসি)' বিভাগে পরিণত হয়। অর্থাৎ গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে ফিল্ম-টেলিভিশন ও ডিজিটাল মিডিয়া নামে বর্তমানে কোনো বিভাগই নেই। স্ক্রিনশট দেখুন--

প্রতিবেদনটি পড়ুন এখানে

এছাড়া বিভ্রান্তিকর খবরটি অনলাইনে ছড়িয়ে পড়লে, তথ্য যাচাইকারী সংস্থা ফ্যাক্ট ওয়াচ এই বিষয়ে নিশ্চিত হতে গ্রিন ইউনিভার্সিটির শিক্ষক প্রফেসর ড. আফজাল হোসেন খানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, "২০১৭ সালে ফিল্ম টেলিভিশন এন্ড ডিজিটাল মিডিয়া ডিপার্টমেন্টের চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল ক্রিয়াকলাপের সাথে নিবিড়ভাবে সম্পৃক্ত করতে চলচ্চিত্র অঙ্গনের বিভিন্ন তারকা অভিনেতা, অভিনেত্রীদের গ্রিন ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসে অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য রাখার জন্য আমন্ত্রণ জানাতেন। চলচ্চিত্র পরিচালক জাকির হোসেন রাজু একাজে তাকে সহযোগিতা করতেন। সে সময়ে তার আমন্ত্রণে অন্যান্য অভিনেতা, অভিনেত্রী এবং পরিচালকদের পাশাপাশি অভিনেত্রী পূর্ণিমাও একদিন গ্রিন ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসে শুভেচ্ছা বক্তব্য রেখেছিলেন। তিনি আরও জানান, ২০১৭ সালে সেদিনের পরে পূর্ণিমা আর কখনো গ্রিন ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসে আসেন নি।"

অর্থাৎ খবরটি পুরোনো এবং অভিনেত্রী পূর্নিমার শিক্ষক হিসাবে গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে যোগ দেয়ার দাবিটিও বিভ্রান্তিকর।

সুতরাং, অভিনেত্রী পূর্নিমার শিক্ষক হিসাবে গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে যোগ দেয়ার খবর প্রচার করা হচ্ছে একাধিক অনলাইন পোর্টালে, যা বিভ্রান্তিকর।

Updated On: 2022-04-29T21:48:54+05:30
Claim :   গ্রিন ইউনিভার্সিটির শিক্ষক হলেন পূর্ণিমা
Claimed By :  Online Portals
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.