পরিমনির এই ছবিটি সাম্প্রতিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার দিনের নয়

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, ছবিটি পরিমনির ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ ও টুইটারে ৭ এপ্রিল আপলোড হয়েছিল; সাম্প্রতিক বলা বিভ্রান্তিকর।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে একটি ছবি দিয়ে দাবি করা হচ্ছে, করোনার পর স্কুল খুলে দেয়ার প্রথম দিনে ভিকারুননিসা নূন কলেজের শিক্ষার্থীদের সাথে পরিমনি দাঁড়িয়ে আছেন। দেখুন এমন দুটি পোস্ট এখানে এবং এখানে

গত ১৪ সেপ্টেম্বর 'Relatable?' নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে একটি ছবি পোস্ট করে বলা হয়, 'স্কুল কলেজ খুলে দেওয়ার প্রথম দিনে ভিকারুননিসা কলেজে পরিমনি! শিক্ষার্থীদের সাথে আনন্দের মুহুর্তে!'। অর্থাৎ দাবিমতে, করোনা মহামারীতে দীর্ঘ ৫৪৩ দিন বন্ধ থাকার পর গত ১২ সেপ্টেম্বর স্কুল-কলেজ পুনরায় খুলে দেয়ার দিনে ভিকারুননিসা নূন কলেজে শিক্ষার্থীদের সাথে ছবি তুলেছেন চিত্রনায়িকা পরিমনি। দেখুন সেই পোস্টের স্ক্রিনশট--


ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, পরিমনির ছবি সম্বলিত এই পোস্টের বর্ণনা বিভ্রান্তিকর। চিত্রনায়িকা পরিমনির এই ছবিটি সাম্প্রতিক সময়ের নয়। রিভার্স ইমেজ সার্চিং টুল ব্যবহার করে ছবিটি চিত্রনায়িকা পরিমনির ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পাওয়া গেছে। গত ৭ এপ্রিল ছবিটি তার পেজে আপলোড করা হয় যেখানে পরিমনিকে বেশ কিছু শিক্ষার্থীদের সাথে সেলফি তুলতে দেখা যাচ্ছে। দেখুন সেই পোস্টের স্ক্রিনশট--


পরিমনির পোস্টটি দেখুন--

এছাড়া ছবিটি একইদিনে অর্থাৎ গত এপ্রিলের ৭ তারিখে 'Pori Moni (স্মৃতি )' নামের একটি টুইটার একাউন্ট থেকে একই ক্যাপশনে পোষ্ট করা হয়। দেখুন টুইটারে পোষ্ট করা সেই ছবি--

তবে এপ্রিল মাসে আপলোড করা পরিমনির এই ছবিটির ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য খুঁজে পায়নি বুম বাংলাদেশ। ছবিটি ঠিক কবে তোলা হয়েছে এবং কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের সাথে তোলা তাও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে এটা নিশ্চিত যে, ছবিটি গত ৭ এপ্রিল কিংবা তার আগে কোন এক সময়ে তোলা।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারিতে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর গত ১২ সেপ্টেম্বর উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হয়েছে। দেখুন এ সংক্রান্ত বিবিসি বাংলার একটি প্রতিবেদন এখানে--


প্রতিবেদনটি পড়ুন এখানে

সুতরাং এপ্রিল মাসে আপলোড হওয়া পরিমনির একটি ছবিকে ১২ সেপ্টেম্বর শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দিনের ছবি বলে দাবি করা বিভ্রান্তিকর।

Claim Review :   স্কুল কলেজ খুলে দেওয়ার প্রথম দিনে ভিকারুননিসা কলেজে পরিমনি! শিক্ষার্থীদের সাথে আনন্দের মুহুর্তে!
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story