ছবিগুলো বাংলাদেশি কোনো অসুস্থ শিশুর নয়

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, ছবিগুলো ভারতের আলভিনা নামের এক অসুস্থ শিশুর; তাকে বাংলাদেশি দাবি করে সাহায্য চাওয়া প্রতারণামূলক কাজ।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে একাধিক ছবি দিয়ে দাবি করা হচ্ছে, তাসনিয়া আক্তার আয়েশা নামের এক শিশু মারাত্মক ফুসফুস এবং কিডনি জনিত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছে। তার সুচিকিৎসার জন্য ৬ লক্ষ টাকা প্রয়োজন। দেখুন এমন দুটি পোস্ট এখানে এবং এখানে

গত ১ ডিসেম্বর 'Syed Amin' নামের ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি থেকে চারটি ছবিসহ একটি পোস্ট করা হয়। সেখানে বলা হয়, রংপুরের তাসনিয়া আক্তার আয়েশা নামের এক শিশু মারাত্মক ফুসফুস এবং কিডনির সমস্যা নিয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছে। সেখানে আরো বলা হয়, শিশুটির পিতার নাম মো. হাকিম মিয়া এবং তার চিকিৎসার জন্যে এ মুহুর্তে ৬ লক্ষ টাকার প্রয়োজন। এছাড়া আর্থিক সাহায্য পাঠানোর জন্য মোবাইলে অর্থ লেনদেন সেবা প্রতিষ্ঠান বিকাশ, নগদ ও রকেটের হিসেব খোলা একটি ফোন নম্বরও উল্লেখ করা হয় সেই পোস্টে। ছবিগুলোতে দেখা যায়, একটি শিশু হাসপাতালের বেডে শুয়ে আছে, তার পাশে এক মহিলাকেও দেখা যাচ্ছে। দেখুন সেই পোস্টটি--


ছবিগুলো আলাদাভাবে দেখুন–


ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, ছবিগুলো বাংলাদেশের কোনো শিশুর নয়। রিভার্স ইমেজ সার্চিং টুল ব্যবহার করে ছবিগুলো একাধিক সামাজিক মাধ্যমসহ একটি ওয়েবসাইটে বিস্তারিত তথ্যসহ পাওয়া গেছে। গত ২১ নভেম্বর 'Ketto' নামের একটি ক্রাউডফান্ডিং সংস্থা তাদের ফেসবুক ভেরিফায়েড পেজে চারটি ছবিসহ একটি পোস্ট করে। সেখানে বলা হয়, "Caged by a deadly disease & covered in multiple tubes, my 6-yo daughter is battling death in the PICU. Allah, hear my prayers!" অর্থাৎ বলা হচ্ছে, 'আমার ছয় বছরের মেয়ে মারাত্মক রোগে আক্রান্ত হয়ে একাধিক টিউব জড়িয়ে পিআইসিউ তে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। আল্লাহ আমার প্রার্থনা শুনুন'। এছাড়া সেখানে সাহায্যের আবেদন সংক্রান্ত একটি লিংকও পোস্ট করা হয়। তবে ছবিগুলো সম্পর্কে কোনো বিস্তারিত তথ্য সেখানে পাওয়া যায়নি। দেখুন সেই পোস্টটি--

পরবর্তীতে মুম্বাইভিত্তিক সেই ক্রাউডফান্ডিং ওয়েবসাইট 'কিটো'তে ছবিগুলোর সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়। সেখানে বলা হয়, অসুস্থ শিশুটির নাম আলভিনা, সে মারাত্মক শ্বাস-প্রশ্বাস জনিত রোগে ভুগছে। তার পিতা-মাতার নাম আজহার এবং ফাতিমা। দেখুন--


এছাড়া সেখানে অসুস্থ শিশু আলভিনার মেডিকেল ডকুমেন্ট আপলোড করা হয়েছে সেই ওয়েবসাইটে। দেখুন এ সংক্রান্ত একটি ডকুমেন্ট--


একই ছবিসহ বর্ননা তাদের ভেরিফায়েড টুইটার আইডিতেও পাওয়া গেছে। দেখুন--

তাছাড়া 'iCare Charity Foundation' নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলেও এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। দেখুন--

অপরদিকে ফেসবুকে পোস্ট করা সাহায্যের আবেদনগুলোতে ছবিগুলো বাংলাদেশি মেয়ে বলে দাবি করা হলেও সেখানে কোনো কিছুর বিস্তারিত উল্লেখ নেই। ইতিমধ্যে ফ্যাক্টওয়াচ নামক আরেকটি ফ্যাক্ট-চেকিং সংস্থাও ছবিগুলোকে ভারতীয় শিশুর বলে নিশ্চিত করেছে। দেখুন তাদের রিপোর্ট এখানে

তবে তাসনিয়া আক্তার আয়েশা নামে আদতে কোনো অসুস্থ শিশুর অস্তিত্ব আছে কিনা সেটি নিশ্চিত হতে পারেনি বুম বাংলাদেশ।

অর্থাৎ ভারতের অসুস্থ শিশুর ছবিকে বাংলাদেশি বলে দাবি করে আর্থিক সাহায্য চাওয়া হচ্ছে যা বিভ্রান্তিকর এবং প্রতারণামূলক।

Claim :   বাবা মায়ের একমাত্র মেয়ে ছোট্ট #তাসনিয়া_আক্তার_আয়েশা কে বাচাতে এগিয়ে আসুন।
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.