আগুনে পুড়ে যাওয়া টাকার ছবিটির সাথে ঝালকাঠির লঞ্চ দুর্ঘটনার সম্পর্ক নেই

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, গত সেপ্টেম্বর মাসে ফেসবুকে ছবিটি পোস্ট করতে দেখা গেছে, সাম্প্রতিক লঞ্চ দুর্ঘটনার সাথে সম্পর্কহীন।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি ও পেজ থেকে আগুনে পুড়ে যাওয়া একটি লঞ্চ ও পুড়ে যাওয়া টাকার ছবির একটি কোলাজ শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, সম্প্রতি ঝালকাঠিতে মর্মান্তিক লঞ্চ দুর্ঘটনায় পুড়ে যাওয়া টাকার ছবি এটি। এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ১৬ ডিসেম্বর 'মোঃ মারুফ হোসেন' নামের একটি ফেসবুক আইডি থেকে ছবিটি পোস্ট করে লেখা হয়, " -ভেবে দেখেছেন..?🙄 চারদিকে এত পানি! কিন্তুু আগুন নিভানোর জন্য এই পানি কোন কাজেই আসলো না!🙂- যে টাকার পিছনে আমরা ঘুরি সেই টাকা পুড়ে ছাই হয়ে গেলো!😊 আমাদের জন্য এটি একটি বড় শিক্ষা কিসের এতো অহংকার, দেমাক, ক্ষমতা, দেখাচ্ছি আমরা, সব কিছুই তুচ্ছ!😥"। ওই পোস্টের স্ক্রিনশট দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এখানে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, ছবির বর্ণনায় করা কোনো দাবিটি সঠিক নয়। ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে ঢাকা থেকে বরগুনাগামী এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে গত বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত তিনটার দিকে, অন্যদিকে পুড়ে যাওয়া টাকার ছবিটি প্রায় তিন মাস আগে গত সেপ্টেম্বর মাসে একাধিক আইডি ও পেজ থেকেও পোস্ট করতে দেখা গেছে। অর্থাৎ পুড়ে যাওয়া টাকার ছবিটি লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার সাথে সম্পর্কিত নয়।

লঞ্চের ছবিটি

রিভার্স ইমেজ সার্চ করার পর, পুড়ে যাওয়া লঞ্চের ছবিটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সিএনএন-এ " At least 38 people killed in Bangladesh ferry fire" শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে খুঁজে পাওয়া যায়। স্ক্রিনশট দেখুন--

খবরটি পড়ুন এখানে

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলীয় জেলা ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে একটি যাত্রীবাহী লঞ্চে আগুন লেগে অন্তত ৪০ জন মারা যাবার খবর প্রকাশিত হয়েছে গণমাধ্যমে। এই ঘটনায় এখনো নিখোঁজ যাত্রীদের উদ্ধার এবং নিহতদের পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা চলছে।

পুড়ে যাওয়া টাকার ছবি

রিভার্স ইমেজ সার্চ করে, সামাজিক মাধ্যমে "আমাদের পটুয়াখালি" নামের একটি পেজ সহ একাধিক পেজ ও আইডিতে পটুয়াখালীর নিউমার্কেটে অগ্নিকাণ্ডের দাবি করে পোস্ট করা বেশ কয়েকটি ছবির মধ্যে পুড়ে যাওয়া টাকার ছবিটিও খুঁজে পাওয়া যায়। গুগল সার্চে গত ০৭ অক্টোবর "পটুয়াখালীর নিউমার্কেটে অগ্নিকাণ্ডে পুড়েছে শতাধিক দোকান" শিরোনামে প্রথম আলো অনলাইনে একটি খবর প্রকাশিত হতে দেখা গেছে। "আমাদের পটুয়াখালি" পেজে ৮ অক্টোবর করা পোস্টের স্ক্রিনশটটি দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এখানে

এর সূত্রধরে, আর অনুসন্ধান করার পর, '(ইসলামিক জীবন) islAmiC LiFe' নামের একটি ফেসবুক গ্রুপে 'MD Tashin' থেকে গত ২৮ সেপ্টেম্বর "স্বপ্ন পুড়ে ছাই, কৃষি কাজ ও অন্যের জমিতে দিন মজুরি করে একটু একটু করে স্বপ্ন গড়ার লক্ষে এগিয়ে গেলেও আগুনের হাত থেকে রক্ষা পায় নি কিছুই।" এই ক্যাপশনে তিনটি ছবি পোস্ট করা হয়, যার প্রথম ছবিটিই ভাইরাল হওয়া সেই পুড়ে যাওয়া টাকার। পোস্টটির স্ক্রিনশট দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এখানে

অর্থাৎ লঞ্চ দুর্ঘটনার আগেও বিভিন্ন সময়ে ছবিটি একাধিক দাবিতে ভাইরাল হয়েছিল। তন্মধ্যে একই ছবিটি ছবিটি রংপুরের পীরগঞ্জে জেলেপাড়ায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ও আগুন দেয়ার ঘটনা সাথে মিলিয়ে ভাইরাল হলে বুম বাংলাদেশ ছবিটি যাচাই করে দাবিটি বিভ্রান্তিকর সাব্যস্ত করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল। তবে পুড়ে যাওয়া টাকার ছবিটি কোন ঘটনার তা চিহ্নিত করা যায়নি।

সুতরাং ভিন্ন কোন ঘটনার ছবি ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে সম্প্রতি যাত্রীবাহী লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার দাবি করে প্রচার করা হচ্ছে, যা বিভ্রান্তিকর।

Claim :   যে টাকার পিছনে আমরা ঘুরি সেই টাকা পুড়ে ছাই হয়ে গেলো!
Claimed By :  Facebook post
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.