গাজীপুরের কারখানায় হামলার ভিডিওকে হাজী সেলিমের উপর হামলা বলে প্রচার

গাজীপুরের কারখানার হামলার ভিডিওকে সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের উপর হামলা বলে ছড়ানো হচ্ছে ফেসবুকে।

ফেসবুকে বিভিন্ন পেইজ থেকে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে দাবি করা হচ্ছে যে ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমকে জনগণ বেধড়ক পিটুনি দিয়েছে। এছাড়া তিনি এমপি পদ হারিয়েছেন বলেও দাবি করা হয়। ভিডিওটি দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে


SM MEDIA নামক ফেসবুক পেইজ থেকে ১০ মিনিটের একটি ভিডিও পোস্ট করা হয় যার ক্যাপশন ছিল--

"পাজি সেলিমকে বেধরক পিটুনি দিল জনতা । এমপি পদ হারালেন ।"

পোস্টটির আর্কাইভ দেখুন এখানে

ভিডিওটির শুরুতে দেখা যায় বেশ কিছু লোক একটি গেটে হামলা করছে, গাড়ি ও অন্যান্য স্থাপনা ভাংচুর করছে। ক্যাপশনের দাবিমতে উক্ত হামলা হয়েছে হাজী সেলিমের উপর।

ভিডিওটির পরের অংশে দেখা যায় হাজী সেলিমের পুত্র এরফান সেলিমের বাসায় র‍্যাবের অভিযান চালানোর ভিডিও। এছাড়া শেষাংশে সময় টিভির একটি লাইভকৃত খবরও প্রদর্শিত হয়।

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, ভিডিওটির প্রথম অংশটি (প্রথম ৪০ সেকেন্ড) হাজী সেলিমের উপর জনতার হামলার ভিডিও নয়। বরং ভিডিওতে প্রদর্শিত হামলাটি হয়েছিল গাজীপুরের দুটি কারখানায়। আসল ভিডিওটি "গাজীপুরে দিগন্ত সোয়েটার কারখানায় শ্রমিক বিক্ষোভ ভাঙচুর, অন্য একটি কারখানায় হামলা" শিরোনামে ইউটিউবে আপলোড করা হয় এ বছরের ২৮ অক্টোবর।


সে হামলার ব্যাপারে দ্য বিজনেস স্ট্যাণ্ডার্ডে ২৮ অক্টোবরে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়--

"গাজীপুরে নাওজোড় এলাকায় দিগন্ত সোয়েটার কারখানায় শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। বুধবার সকালে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কারখানায় হামলা, ভাঙচুর করে। এক পর্যায়ে তারা ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে।"

এছাড়া উক্ত ভিডিওর ক্যাপশনে আরো দাবি করা হয়েছে "এমপি পদ হারালেন" হাজী সেলিম। কিন্তু আজ ৯ নভেম্বর পর্যন্ত মূলধারার কোন সংবাদমাধ্যমে এ সংক্রান্ত কোন খবর পাওয়া যায়নি।

Claim Review :   হাজি সেলিমকে বেধড়ক পিটুনি দিল জনতা, এমপি পদ হারালেন।
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story