যুক্তরাষ্ট্রের অগ্নিকাণ্ডের ভিডিও ইসরায়েলের বলে প্রচার

২০১১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে একটি রাসায়নিক কারখানায় সংগঠিত অগ্নিকাণ্ডের ভিডিওকে ইসরায়েলের বলে প্রচার করা হচ্ছে সামাজিক মাধ্যমে।

সামাজিক মাধ্যমে একটি অগ্নিকান্ডের ভিডিও পোস্ট করে বলা হচ্ছে, এটি ইসরায়েলের গ্যাস ফিল্ডে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের। ভিডিওটিতে একটি স্থাপনায় আগুন লাগার দৃশ্য যায়। এরকম কিছু লিংকের আর্কাইভ দেখুন এখানে এখানে, এখানে

গত ২২ মে 'Rashedul Islam Rushdi' নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে "আল্লাহর গজব শুরু হয়েছে.: ইসরায়েলের গ্যাস ফিল্ডে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন।" শিরোনামে একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। যেটি এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত চার লাখেরও বেশি মানুষ দেখেছে। এবং ২৫ হাজারের রিয়াক্ট করা হয়েছে। দেখুন এখানে
-

একই দাবি সহ ভিডিওটি আরও অনেক ফেসবুক আইডি এবং পেজ থেকে ভাইরাল হয়েছে। দেখুন-

ফ্যাক্ট চেক

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাস শহরের একটি রাসায়নিক কারখানার অগ্নিকাণ্ডের ভিডিওচিত্র এটি। মূলত, ২০১১ সালের ৩ অক্টোবর সেখানকার ডালাস শহরের দক্ষিণে একটি রাসায়নিক প্লান্টে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটে।

ইনভিড টুলের সাহায্যে সার্চ করার পর 'Lazar Otasevic' নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে "2011 Texas chemical plant fire October 3 2011" শিরোনামে একটি ভিডিও পাওয়া গেছে। ২০১১ সালের ৪ অক্টোবর সেই ভিডিওটি আপলোড করা হয়। ইউটিউবে পাওয়া ১ মিনিট ১৪ সেকেন্ডের এই ভিডিও ক্লিপটির সাথে ফেসবুকে ভাইরাল ক্লিপটির হুবহু মিল পাওয়া গেছে।

ইউটিউব ভিডিওর ডিসক্রিপশনে বলা হয়, অগ্নিকান্ডের ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাস শহরের একটি রাসায়নিক প্লান্টে।

এর সূত্রধরে বিস্তারিত সার্চের পর ২০১১ সালের ৩ অক্টোবর প্রকাশিত যুক্তরাষ্ট্রের CBS News- এর " Texas chemical plant fire October 3, 2011" শিরোনামে এ সম্পর্কিত সম্পর্কিত একটি প্রতিবেদন পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটি থেকে ঘটনাটি ২০১১ সালের ডালাস শহরের ম্যাগনাব্লেন্ড রাসায়নিক প্লান্টে ( Magnablend chemical plant) সংগঠিত অগ্নিকান্ডের বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

সিবিএস নিউজ-এর প্রতিবেদনের লিংক দেখুন এখানে

সিবিএস নিউজ একই তারিখে তাদের ইউটিউব চ্যানেলে অগ্নিকান্ডের ঘটনাটির ভিডিওটির আরেকটি ভার্সন প্রকাশ করে।

এছাড়া রয়টার্স, ওয়াশিংটন পোস্টসহ আরো অনেক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে এই ঘটনা সম্পর্কিত প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ইসরায়েলের একটি গ্যাস ফিল্ডে আগুন লাগার কথা আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। তবে নিশ্চিতভাবে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি ইসরায়েলের গ্যাস ফিল্ডের নয়। ইসরায়েলের হাইফা শহরের নিকটবর্তী একটি গ্যাস ফিল্ডের প্ল্যাটফর্মে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে রুশ বার্তাসংস্থা স্পুটনিক-এর প্রতিবেদন দেখুন

Claim Review :   ইসরায়েলের গ্যাস ফিল্ডে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story