অন্ধ্র প্রদেশের পুলিশের তৈরি এক বছর আগের ভিডিও বংলাদেশে বিভ্রান্তিকরভাবে প্রচার

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ভারত সরকার ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়নে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য অন্ধ্র প্রদেশের পুলিশ ভিডিওটি বানিয়েছিল।

"ভারতে কদিন আগেও যারা মসজিদ ধ্বংস করেছিলো। মুসলমানদের হত্যা করেছিলো। তারাই আজ মুসল্লিদের সামনে হাটুগেড়ে বসে যাচ্ছে নামাজ পড়ে একটু দোয়া করার জন্য। #আল্লাহ_সর্বশক্তিমান"- এমন ক্যাপশনযোগে ফেসবুকে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে৷ ভিডিওতে কিছু পুলিশ সদস্যদের হাটুগেড়ে পথচারীদের সামনে হাত জোড় করতে দেখা যায়৷ দাবি করা হচ্ছে, করোনার প্রকোপ কমার জন্য ভারতীয় পুলিশ সদস্যরা হাটুগেড়ে বসে মানুষকে নামাজ পড়ে দোয়া করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছেন।

ভিডিওটি বিভিন্ন ফেসবুক পেজ ও প্রোফাইল থেকে ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে।

আর্কাইভ করা আছে এখানে

ফ্যাক্ট চেক:
বুম বাংলাদেশ অনুসন্ধান করে দেখেছে দাবিটি বিভ্রান্তিকর।
ভিডিওটি মূলত ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ এর পুলিশের করা একটি সচেতনতামূলক ভিডিওর অংশবিশেষ।
গত বছর তথা ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে ভারতে লকডাউন চলাকালীন সময় অন্ধ্র প্রদেশের পান্যম থানা পুলিশ এই ভিডিওটি প্রচার করে যেখানে করোনার সংক্রমণ এড়াতে জনসাধারণকে বাড়িতে অবস্থান করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।
কুরনোল জেলার পান্যম থানা পুলিশ এই ভিডিওটি তৈরী করে এবং সচেতনতায় বৃদ্ধিতে অংশ নেন৷ ভিডিওতে তাদেরই দেখা যাচ্ছে৷
সামাজিক মাধ্যমে সে সময় ভিডিওটি বেশ আলোচিত হয়।

এই সংক্রান্ত খবর দেখুন
এখানে
এখানে

সুতরাং, এটা মুসল্লীদের সামনে হাঁটু গেড়ে নামাজ পড়ে দোয়া করার জন্য পুলিশের অনুরোধ করার ভিডিও নয়।
Claim Review :   পুলিশ সদস্যরা হাটুগেড়ে বসে মানুষকে নামাজ পড়ে দোয়া করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছেন
Claimed By :  Facebook posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story