বাসে আগুন: ১ বছর আগের ভিডিওর সাথে ভুল তথ্য যুক্ত করে প্রচার

২০১৯ সালে একাধিক ফেইসবুক পেইজ ও প্রোফাইলে আপলোড হওয়া ভিডিও'র সাথে নতুন দাবি যুক্ত করে ছড়ানো হচ্ছে ফেসবুকে।

গতকাল ১২ নভেম্বর ফেসবুকে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সেখানে দাবি করা হচ্ছে সেদিন (বৃহস্পতিবার) বাসে আগুন দিতে গিয়ে একজন হাতেনাতে ধরা পড়েছে। দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে


'সেলিনা সুলতানা নিশীতা, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি।' নামক একটি পেইজ থেকে একটি ভিডিও আপলোড করা হয় যার ক্যাপশন ছিল--

"বাসে আগুন দেওয়ায় একজনকে ধরা! বেরিয়ে এসেছে গোপন রহস্য "। স্ক্রিনশট দেখুন---

আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে

উক্ত ভিডিওতে দেখা যায়, একটি ছেলেকে বেশ কিছু লোক ঘিরে ধরেছে এবং তাকে নানাবিধ প্রশ্ন করা হচ্ছে। ভিডিওটিতে ছেলেটি নিজের নাম মারুফ বলে দাবি করছে এবং সে এখানে একজন ছাত্রলীগের কর্মীর মাধ্যমে এসেছে উক্ত স্থানে এসেছে বলে জানায়।

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, ভিডিওটি অন্তত ১ বছর পুরানো এবং ২০১৯ সালের ২০ মার্চ একাধিক ফেইসবুক পেইজ ও প্রোফাইল থেকে আপলোড হয়েছে বলে দেখা যাচ্ছে। এরকম একটি ভিডিও দেখা যাচ্ছে, 'Mahfuj Avin মাহফুজ এভিন' নামক একটি পেইজে। উক্ত পেইজে ভিডিওটি ২০ মার্চ, ২০১৯ সালে আপলোড হয়েছে। ভিডিওটির স্ক্রিনশট দেখুন--

ভিডিওটির আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে

এছাড়া ২০১৯ সালের একই দিনে এই ভিডিওটি একাধিক প্রোফাইল থেকেও আপলোড করা হয়। তবে ভিডিওটির আসল উৎস এবং কোন ঘটনার প্রেক্ষিতে ধারণ করা হয়েছিল তা জানা গেলেও ধারণা করা যায়, ২০১৮-১৯ সালে চলমান নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের সময়ে ভিডিওটি বেশ ছড়িয়ে পড়ে।

তাই ভিডিওটি গত ১২ নভেম্বর, ২০২০ এর বাস পোড়ানোর ঘটনার ভিডিও বলে দাবি করা ভুয়া এবং ভিত্তিহীন।

Updated On: 2020-11-13T11:49:20+05:30
Claim Review :   নভেম্বর মাসের ১২ তারিখ বাসে আগুন দিতে গিয়ে হাতেনাতে আটক ছাত্রলীগ কর্মী
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story