ছবি দুটি ত্রিপুরার সাম্প্রতিক মুসলিম-বিরোধী উত্তেজনার নয়

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, একটি ছবি ভারতের নয়াদিল্লির রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডের ও অপরটি আসামে সিএএ বিরোধী বিক্ষোভের।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে ত্রিপুরায় মুসলিম বিরোধী সহিংসতার দাবি করে দুটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে। দেখুন এরকম দুটি পোস্ট এখানে এবং এখানে

গত ২৯ অক্টোবর 'Muslim Media BD' নামের ফেসবুক পেজ থেকে দুটি ছবিসহ একটি লেখা পোস্ট করা হয়। সেই পোস্টে দাবি করা হয়, "ত্রিপুরায় এখন পর্যন্ত ১৬ টি মসজিদে আগুন এবং অনেক ঘর বাড়িতে আগুন লাগিয়েছে। ত্রিপুরার মুসলিমদের জন্য দোয়া করুন।" এছাড়া সেই পোস্টে ত্রিপুরার মুসলিমদের জন্যে প্রার্থনার আহ্বান করা হয়। ছবি দুটির একটিতে দেখা যায়, দমকল বাহিনী একটি অগ্নিকাণ্ড নেভানোর চেষ্টা করছে। অপর ছবিতে দেখা যায়, বেশ কিছু লোক রাস্তায় আগুন দিয়ে বিক্ষোভ করছে। দেখুন সেই পোস্টের স্ক্রিনশট--


ছবি দুটি আলাদাভাবে দেখুন--


এবং


ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, ছবি দুটি ত্রিপুরার নয় এবং সেখানকার মুসলিম বিরোধী সংঘাতের সাথেও সম্পৃক্ত নয়।

রিভার্স ইমেজ সার্চিং টুল ব্যবহার করে দেখা গেছে, একটি ছবি প্রকাশিত হয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরায়। ২০২১ সালের জুন মাসে 'India: Fire rips through Rohingya camp, leaving hundreds homeless' শিরোনামে প্রকাশিত সেই খবরে বলা হয়, গত ১৩ জুন ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির মদনপুর খাদর এলাকায় অবস্থিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মারাত্মক অগ্নিকাণ্ডর ঘটনা ঘটে। ছবিটি মূলত সেই ঘটনার এবং তুলেছেন ফটোগ্রাফার মীর ফয়সাল। দেখুন সেই খবরের স্ক্রিনশট--


খবরটি দেখুন এখানে

একইদিনে 'মজো স্টোরি' নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে সেই অগ্নিকাণ্ডের একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। দেখুন সেই ভিডিওটি--

এছাড়া এ সংক্রান্ত দ্য কুইন্টের একটি ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন দেখুন এখানে

একইভাবে সার্চ করে দেখা গেছে, অপর ছবিটিও সাম্প্রতিক ত্রিপুরায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতার সাথে সম্পর্কিত নয়। এ ছবিটি মূলত আসামের গোহাটিতে নাগরিকত্ব সংশোধন আইন-সিএএ বিরোধী আন্দোলন-বিক্ষোভের। ভারতের সংবাদমাধ্যম 'দ্য প্রিন্ট' এ ছবিটি ২০১৯ সালে প্রকাশিত হয়েছিল। দেখুন--


দ্য প্রিন্টের প্রতিবেদনটি দেখুন এখানে

এ ছবি সংক্রান্ত বুম বাংলাদেশের আরেকটি বিস্তারিত ফ্যাক্ট চেক প্রতিবেদন দেখুন এখানে

অর্থাৎ ত্রিপুরায় মুসলিম-বিরোধী সহিংসতার খবরের সাথে ভারতের ভিন্ন ঘটনার দুটি পুরোনো ছবি পোস্ট করা হচ্ছে যা বিভ্রান্তিকর।

Claim :   ছবিগুলো ত্রিপুরার মুসলিম বিরোধী সহিংসতার
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.