ছবিটি কোন পুলিশ অফিসারের পদত্যাগ সংক্রান্ত নয়

২০১৯ সালে পুলিশের পোশাক পরে ডাকাতির অভিযোগে ৮ জনকে আটকের খবর থেকে ছবিটি নেওয়া হয়েছে।

ফেসবুকে এবটি ছবি ছড়িয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে একটি টেবিলের উপর বাংলাদেশ পুলিশের একটি ইউনিফর্ম, হ্যান্ডকাফ, ওয়াকিটকি ও নগদ টাকা রাখা। ছবিটি বিভিন্ন গ্রুপে পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে, এটি হেফাজতে ইসলামের সমর্থকদের বিরুদ্ধে গুলি ও লাঠিচার্জ করতে অপারগতা প্রকাশ করে এক পুলিশ অফিসারের পদত্যাগের ছবি।

একটি পোস্টে লেখা হয়েছে-
''একজন সৎ পুলিশের পদত্যাগ।
১. দরকার নেই সে চাকরি,যে চাকরি ইসলামের বিরুদ্ধে গুলি/ লাঠি,সার্চ করে।
২. দরকার নেই সে চাকরি, যে চাকরি মায়ের বুক খালি করে।
৩. দরকার নেই সে চাকরি, যে চাকরি ছেলে মেয়েকে এতিম করে।
৪. দরকার নেই সে চাকরি, যে চাকরি একটি পরিবারের সপ্ন ভেঙ্গে দেয়।
৫. দরকার নেই সে চাকরি, যে চাকরি একটি মেয়েকে স্বামী হারা করে।
৬. মরতে হয় ইসলামের জন্যই মরবো।
৭. ইসলামের বিরুদ্ধে কোন কাজ করে মরতে চাই না।
জাহিদ ভাই সেলুট জানাই আপনার ঈমানী চেতনাকে।''

আর্কাইভ করা আছে এখানে

আরেকটি পোস্ট দেখুন এখানে
ফ্যাক্ট চেক:
বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে যে এই ছবিটি ২০১৯ সালর একটি ঘটনার। সেবছর ১০ জুলাইয়ের 'পরনে পুলিশের পোশাক, হাতে ওয়াকিটকি, ডাকাতিই ছিল তাদের কাজ' শীর্ষক কালের কন্ঠের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের দক্ষিণ বিভাগ সেসময় পুলিশ সেজে ডাকাতি করা চক্রের ৮ সদস্যকে গ্রেফতার করে। ফেসবুকে বর্তমানে ছড়ানো ছবিটি প্রতিবেদনটিতে আছে।


ঢাকা মহানগর পুলিশ কর্তৃক পরিচালিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল ডিএমপি নিউজের 'পুলিশ সেজে ডাকাতি, গ্রেফতার ৮; উদ্ধার ১০ লাখ টাকা' শিরোনামের খবরেও একই ছবি দেওয়া আছে।

যুগান্তরের অনলাইনে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনটি দেখুন এখানে
তাছাড়া সম্প্রতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ মোদীর বাংলাদেশ সফরের বিরোধীতা করে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কর্মসূচীকে কেন্দ্র করে কোন পুলিশ অফিসার পদত্যাগ করেছেন বলে কোন খবর মূলধারার কোন সংবাদমাধ্যমে পাওয়া যায়নি।
সুতরাং প্রায় দুই বছর আগের ঘটনার ছবিকে ভিত্তিহীন তথ্য সংযুক্ত করে ছড়ানো বিভ্রান্তিকর।
Claim Review :   একজন সৎ পুলিশের পদত্যাগ
Claimed By :  Facebook posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story