সৌদি সেনাবাহিনীতে নারীদের যুক্ত করার পুরানো খবর প্রকাশ

সম্প্রতি অনলাইন পোর্টালে সৌদি সেনাবাহিনীতে নারীদের যুক্ত করার খবর দিলেও প্রকৃতপক্ষে ২০১৮ সালেই এ ঘোষণা দেয় দেশটি

সম্প্রতি একাধিক অনলাইন পোর্টালে একটি খবরে দাবি করা হচ্ছে, প্রথমবারের মত নারীদের সেনাবাহিনীতে নিয়োগ দিচ্ছে সৌদি আরব সরকার। দেখুন এমন কিছু খবর এখানে, এখানে এবং এখানে

১৩ ফেব্রুয়ারি Bd24live.com নামের অনলাইন পোর্টালে একটি খবরের শিরোনাম দেয়া হয়েছে, 'প্রথমবারের মতো নারীদের সামরিক বাহিনীতে নিয়োগ দিচ্ছে সৌদি আরব!...'।

খবরটির বিস্তারিত অংশে বলা হয়, "এবার দেশটির সেনাবাহিনীতে নারীদের অংশগ্রহণে অনুমোদন দিয়েছে সৌদি প্রশাসন। সৌদিতে প্রথমবারের মতো নারী সৈনিক নিয়োগের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।"

দেখুন স্ক্রিনশট--

মূলধারার কয়েকটি সংবাদমাধ্যমও এই ধরনের খবর প্রকাশ করেছে। দেখুন নিচের স্ক্রিনশট-

ফ্যাক্টচেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, বাংলানিউজ, বাংলাদেশ প্রতিদিন, নিউজটোয়েন্টিফোর বা Bd24live.com এসব পোর্টালের আলোচ্য খবরটি ভুল ও বিভ্রান্তিকর।

প্রথমত, চলতি বছর প্রথমবারের মতো সৌদি সেনাবাহিনীতে নারী সৈনিক নিয়োগের ঘটনা ঘটেনি। আরও ৩ বছর আগেই প্রথম নারী সৈনিক নিয়োগ শুরু করে সৌদি সরকার।

সৌদি গ্যাজেটের একটি খবরমতে, ২০১৮ সালেই সৌদি সেনাবাহিনীতে নারী নিয়োগ দেয়ার ঘোষণা করা হয়। ২০১৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারিতে প্রকাশিত খবরটিতে জেনারেল ডিরেক্টরেট অফ পাবলিক সিকিউরিটির ঘোষণানুযায়ী সৌদি সেনাবাহিনীতে নারীদের সৈন্য হিসেবে নিয়োগের সকল নিয়ামকানুন প্রকাশ করা হয়। দেখুন খবরটির স্ক্রিনশট--

এছাড়া আল আরাবিয়ার ইংরেজি সংস্করণের আরেকটি খবরে দেখা যায়, ২০২০ সালে সৌদি সেনাবাহিনীতে নারীদের স্বতন্ত্র উইং গঠন করা হয়। Saudi Armed Forces launch first women's wing in major new advance শিরোনামের খবরটিতে বলা হয়, সৌদি সেনাপ্রধান ফাইয়াদ আল রুয়াইলি সেনাবাহিনীর নারীদের এই উইংটির কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। দেখুন খবরটির একটি স্ক্রিনশট--

এ সংক্রান্ত বিবিসির একটি রিপোর্ট দেখুন নিচে--

সর্বশেষ গত ১১ ফেব্রুয়ারি সৌদি গেজেট একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে যার শিরোনাম ছিলো, "First soldier jobs open for women at King Fahd Security College

প্রতিবেদনটির শুরুর বাক্যটি হলো, "There are vacancies for first soldier (lance corporal) jobs for Saudi women cadres at King Fahd Security College in Riyadh."

অর্থাৎ, "রিয়াদের কিং ফাহদ সিকিউরিটি কলেজে সৌদি নারী ক্যাডারদের জন্য ফার্স্ট সোলজার (ল্যান্স করপোরাল) পদে চাকরির সুযোগ রয়েছে।"

এখানে first soldier শব্দটির ব্যাখ্যায় lance corporal লিখে বুঝানো হয়েছে first soldier একটি পদ (এন্ট্রেন্স পর্যায়ের) যেটিকে lance corporal -ও বলা হয়ে থাকে। first soldier শব্দ দ্বারা এখানে 'প্রথম নারী সৈনিক (নিয়োগ' বুঝানো হয়নি।

অর্থাৎ ২০১৮ সাল থেকেই সৌদি আরবে নারীদের সেনাবাহিনীতে বিভিন্ন পদে যুক্ত করা হচ্ছে। তাই ২০২১ সালে প্রথমবারের মত নারীদের সৈন্য হিসেবে নিয়োগ দেয়ার খবরটি বিভ্রান্তিকর। আর সৌদি গেজেট এর যে প্রতিবেদন থেকে বাংলাদেশ প্রতিদিন, বাংলানিউজসহ অন্যান্য পোর্টাল "প্রথমবারের মতো সৌদি আরবে নারী সৈনিক নিয়োগ" শিরোনামের খবরটি প্রকাশ করেছে সেটি ভুলভাবে অনুবাদ করা হয়েছে।

*প্রতিবেদনটি প্রথম প্রকাশের পর সংশোধিত

Updated On: 2021-02-13T18:50:23+05:30
Claim Review :   প্রথমবারের মতো নারীদের সামরিক বাহিনীতে নিয়োগ দিচ্ছে সৌদি আরব!
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story