লাশখেকো দুই ভাই এর পুরানো খবর বিভ্রান্তিকর তথ্যসহ প্রচার

কবর থেকে উঠিয়ে লাশ খাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া দুই ভাই এর খবরটি ২০১১ সালে একাধিক মূলধারার সংবাদমাধ্যমে আসে।

ফেসবুকে একটি খবরে দাবি করা হয়, কবর থেকে লাশ তুলে খেত দুই ভাই। দেখুন এমন কিছু পোস্ট এখানে, এখানে এবং এখানে।

গত ২ মার্চ Bd update নামের পেইজ থেকে একটি খবর পোস্ট করা হয় যার শিরোনাম ছিল, মাংস কেনার সামর্থ্য না থাকায় কবর থেকে লাশ তুলে রান্না করে খেত দুই ভাই। খবরটির বিস্তারিত অংশে বলা হয়, পাকিস্তানের দুজন ব্যক্তিকে লাশ খাওয়ার অপরাধে গ্রেফতার করা হয়। দেখুন পোস্টটি এখানে-

আর্কাইভটি দেখুন এখানে

খবরটির আর্কাইভ ভার্সন দেখতে ক্লিক করুন এখানে। আরো একটি খবর পড়ুন এখানে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, উক্ত পেইজে পোস্ট করা খবরটি বিভ্রান্তিকর।

প্রথমত, খবরটি নিয়ে বিস্তারিত সার্চ করে দেখা গেছে, দুইজন ব্যক্তির লাশ তুলে খাওয়ার খবরটি পুরানো। পাকিস্তানের পাঞ্জাবে ঘটে যাওয়া এই খবরটি মূলত ২০১১ সালের। পাকিস্তানের প্রভাবশালী পত্রিকা ডনের একটি খবরের সুত্রে জানা যায়, ২০১১ সালের ৫ এপ্রিল পাঞ্জাবের ভাক্কার জেলায় বেশ কয়েকটি লাশ কবর থেকে উঠিয়ে খাওয়ার অভিযোগে ২ জন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়। উক্ত খবরমতে, তাদের নাম ফরমান এবং আরিফ। দেখুন খবরটির একটি স্ক্রিনশট--


এ সংক্রান্ত বিবিসির একটি খবর দেখুন--

বিবিসির খবরটি পড়ুন এই লিঙ্কে

এছাড়া সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া খবরটিতে আরো দাবি করা হয়, মাংস খাওয়ার সামর্থ্য না থাকায় সেই দুই ব্যক্তি লাশ রান্না করে খেতো। কিন্তু সেই সময়ে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত রিপোর্টগুলোতে এমন কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। বরং বিবিসির রিপোর্টটিতে বলা হয়, পুলিশ এ ব্যাপারে খোলসা করে কিছু বলেনি। তবে হাফপোস্ট পত্রিকার এক খবরমতে বলা হয়, তারা দুই ভাই এক দশকের বেশি সময় ধরে মানুষের মাংস খেতো। এবং তার পিছনে প্রতিশোধপরায়নতার কোনো ব্যাপার থাকতে পারে।

সুতরাং পাকিস্তানে লাশ রান্না করে খাওয়ার খবরটি পুরানো, ২০১১ সালের। এছাড়া মাংস কেনার সামর্থ্য না থাকায় তারা এমনটি করছে এরকম দাবিও বিভ্রান্তিকর।

Claim Review :   মাংস কেনার সামর্থ্য না থাকায় কবর থেকে লাশ তুলে রান্না করে খেত দুই ভাই
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story