অভিনেতা মারুফের সিনেমা থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেয়া সংক্রান্ত খবরটি পুরনো

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, ষড়যন্ত্রের শিকার হওয়ার দাবি করে নায়ক মারুফের এই বক্তব্য ২০২০ সালে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছিল।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে একটি খবর শেয়ার করে বলা হচ্ছে, অপু বিশ্বাসের 'পলিটিক্সের' শিকার হয়ে প্রবাস জীবন বেছে নেন ঢালিউড অভিনেতা কাজী মারুফ। এমন কিছু খবরের লিংক দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ৮ আগস্ট 'Dainik Songbad' নামের একটি ফেসবুক পেজে একটি অনলাইন পোর্টালের খবর প্রকাশ করে লেখা হয়, "অপু বিশ্বাসের 'পলিটিক্সের' শিকার হয়ে প্রবাস জীবন বেঁছে নেন মারুফ"। হুবহু একই শিরোনামে প্রকাশিত খবরটিতে বলা হয়, সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে নায়ক মারুফ বলেছেন, অপু বিশ্বাসের 'ফিল্ম পলিটিক্স' এর কারণে তার ক্যারিয়ারের অনেক ক্ষতি হয়েছে। তাই এখন তিনি আমেরিকায় প্রবাস জীবন বেছে নিয়েছেন। দেখুন সেই খবরটির স্ক্রিনশট--


খবরটির আর্কাইভ দেখুন এখানে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, নায়ক কাজী মারুফের এ সংক্রান্ত খবরটি পুরনো। মূলধারার গণমাধ্যমে ২০২০ সালে খবরটি প্রকাশিত হয়েছিল। তন্মধ্যে গত ২০২০ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর সময় টিভির অনলাইন ভার্সনে'আমার চলচ্চিত্রের ক্যারিয়ার ধ্বংস করেছেন অপু বিশ্বাস: মারুফ' শিরোনামে খবরটি প্রকাশিত হয়েছিল। এতে বলা হয়, ২০০৮ সালে নায়ক মারুফের বিরুদ্ধে মামলা করেন নায়িকা অপু বিশ্বাস। মারুফের দাবি, মূলত তিনি 'পলিটিক্স' এর স্বীকার হয়েছেন। সময় টিভির ওই খবরটির স্ক্রিনশট দেখুন--


একই বছরের ২০ সেপ্টেম্বর এ সংক্রান্ত একটি খবর প্রকাশিত হয় নিউজ টুয়েন্টিফোর টিভির অনলাইন ভার্সনে। 'মারুফের চলচ্চিত্রের ক্যারিয়ার ধ্বংস করেছেন অপু বিশ্বাস!' শিরোনামের সেই খবরে দাবি করা হয়, নায়িকা অপু বিশ্বাসের কারনে সিনেমা ক্যারিয়ার ছেড়ে প্রবাসে চলে গেছেন নায়ক কাজী মারুফ। দেখুন স্ক্রিনশট--


অর্থাৎ ২০২০ সালের একটি পুরোনো খবরটিকে সাম্প্রতিক খবর হিসেবে প্রকাশ করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

Show Full Article
Next Story