জাপানে বিরল মাছ উঠে আসার খবরটি পুরনো

২০১৯ সালে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতে এ সংক্রান্ত একাধিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছিল।

ফেসবুকে একাধিক পেইজে থেকে পোস্টকৃত একটি খবরে বলা হচ্ছে, গভীর সমুদ্র থেকে বিরল মাছ উঠে আসায় সুনামির আশংকা তৈরি হয়েছে। দেখুন এমন কিছু পোস্ট এখানে এবং এখানে

গত ১ এপ্রিল 'পশ্চিমবঙ্গ 24X7' নামের পেইজ থেকে একটি খবর পোস্ট করা হয় যার ক্যাপশন ছিল, 'গভীর সমুদ্র থেকে ফের উঠে এল সেই মাছ,ফের বিশ্ব জুড়ে সুনামির আশঙ্কা!'। খবরটির বিস্তারিত অংশে বলা হয়, জাপানের সমুদ্র থেকে এক প্রকার বিরল মাছ উঠে আসায় সেখানে সুনামির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। দেখুন-


খবরটির আর্কাইভ ভার্সন দেখুন এখানে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, জাপানে বিরল মাছ উঠে আসার খবরটি পুরনো। সিএনএনে প্রকাশিত এক খবরে দেখা যায়, ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে জাপানের টয়োমা এলাকায় কিছু বিরল প্রজাতির মাছ উঠে আসে। জাপানের লোকজন এই মাছকে 'সমুদ্র দেবতার বার্তাবাহক' হিসেবে বিশ্বাস করে। ফলে ধারণা করা হয়, বড় ধরণের বিপদের পূর্ভাবাস এটি। ব্যাপারে সিএনএনের প্রতিবেদনটির স্ক্রিনশট-

সিএনএনের খবরটি পড়ুন এখানে

এছাড়া জাপান টাইমসেও একই খবর প্রকাশিত হয় ২০১৯ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি। দেখুন-

প্রতিবেদনটি পড়ুন এই লিঙ্কে

তবে একই বছরের আরেকটি প্রতিবেদন অনুযায়ী জাপানের একটি গবেষক-দল মনে করেন, মাছের সাথে কোথাও ভূমিকম্প কিংবা সুনামি হওয়ার সম্পর্কের প্রমান পাওয়া যায়নি। এটি কুসংস্কার বৈ কিছু নয়। দেখুন-

রিপোর্টটি দেখুন এখানে

অর্থাৎ, ২০১৯ সালের বৈজ্ঞানিকভাবে অপ্রমানিত একটি খবরকে নতুন করে নতুন ঘটনা হিসেবে প্রচার করা বিভ্রান্তিকর।

Claim Review :   গভীর সমুদ্র থেকে ফের উঠে এল সেই মাছ,ফের বিশ্ব জুড়ে সুনামির আশঙ্কা!
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story