গণমাধ্যমে সালমোনেলা ব্যাকটেরিয়াকে পোলট্রি ভাইরাস বলে ভুয়া খবর প্রকাশ

বুম দেখে বেশ কিছু গণমাধ্যমে সালমোনেলাকে মুরগি থেকে ছড়ানো ভাইরাস বলে উল্লেখ করা হয়েছে, যা আসলে একটি ব্যাক্টেরিয়া।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ও বাংলাদেশের অনলাইন গণমাধ্যমের একাংশে আমেরিকায় সালমোনেলা ব্যাকটেরিয়া সংক্রামণের খবরকে বিভ্রান্তিকরভাবে প্রকাশ করা হচ্ছে। এই সংবাদ প্রতিবেদনগুলিতে সালমোনেলাকে মুরগি বাহিত ভাইরাস বলে মিথ্যা দাবি করা হয়েছে।

"এবার মুরগী ছড়াচ্ছে নতুন ভাইরাস, আক্রান্ত ৪৬৫" এই শিরোনামে ২৭ জুন ২০২০ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিডি২৪ লাইভ। প্রতিবেদনটিতে সিএনএন-এর সংবাদের সূত্রকে উদ্ধৃত করা হয়েছে। প্রতিবেদনটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

২৬ জুন ২০২০ একই বিষয়টি নিয়ে বিডি২৪ রিপোর্ট প্রতিবেদনের শিরোনাম লিখেছে, "করোনার মধ্যেই এবার নতুন ভাইরাস ছড়াচ্ছে মুরগি, একজনের মৃত্যু" প্রতিবেদনটি আর্কাইভ করা আছে এখানে। এই প্রতিবেদনটিতেও সিএনএন-কে সূত্র হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

এই ধরণের সংবাদের লিঙ্ক শেয়ার করা হয়েছে সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটের ফেসবুক পেজগুলো থেকে। পোস্টগুলিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, "করোনার মধ্যেই এবার নতুন ভাইরাস ছড়াচ্ছে মুরগি, একজনের মৃত্যু।"

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

আরও পড়ুন: করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু: সিজিএসের রিপোর্ট ভুলভাবে প্রকাশ সংবাদমাধ্যমে

ফ্যাক্টচেক:

সালমোনেলা কোনও ভাইরাস নয়, এটি এক ধরণের ব্যাকটেরিয়া। সাধারণত এটি পোষা পোল্ট্রি পাখি যেমন হাস মুরগি থেকে মানুষের দেহে সংক্রমন ছড়ায়।

বুম কিওয়ার্ড সার্চ করে ২৫ জুন ২০২০ প্রকাশিত সিএনএন-এর মূল প্রতিবেদনটি খুঁজে পেয়েছে। প্রতিবেদটিতে শিরোনাম বাংলা অনুবাদ করলে দাঁড়ায়, "পোষা পোলট্রির সংস্পর্শে এসে একজনের মৃত্যু ও ৪৬৫ জন অসুস্থ।" (মূল ইংরেজিতে শিরোনাম: "One person has died and 465 people have gotten sick after interacting with pet poultry")


সিএনএন তাদের প্রতিবেদনে ইউএস সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) এর উদ্ধৃতি দিয়ে বলে এই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমনে ওকলাহোমায় একজনের মৃত্যু হয়েছে এবং ৮৬ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। সিডিসি জানায়, মে মাসের ২০ তারিখ থেকে এখন পর্যন্ত ৩৬৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন যার ফলে এ বছর ৪২ প্রদেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৪৬৫ জনে। এই সংক্রমণের সংখ্যা গত বছরের এই সময়ের তুলনায় দ্বিগুণ বলে উল্লেখ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে।

সালমোনেলা প্রসঙ্গে:

সালমোনেলা ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে অন্ত্রের সংক্রমণ হয়। একে সালমিনোসিস বলে। পোলট্রি মুরগির অন্ত্রে বাসা বাঁধে সালমোনেলা। বিষ্টা ও স্পর্শের মাধ্যমে কোনওভাবে পানি ও খাদ্য সালমোনেলা সংক্রমিত হলে তা থেকে সংক্রমিত হয় মানুষে।

সালমোনেলা ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমন যুক্তরাষ্ট্রে নতুন নয়। সিডিসির তথ্য অনুযায়ী যুক্তরাজ্যে প্রতিবছর সালমোনেলায় প্রায় ১.৩৫ মিলিয়ন লোক আক্রান্ত হন যাদের ২৬,৫০০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় এবং ৪২০ জন মারা যান। যার মধ্য়ে তিন ভাগের একভাগ ৫ বছরের কম বয়সী শিশু।

সালমোনেলার সংক্রমন থেকে বাঁচার জন্য সিডিসি বাচ্চাদেরকে পোষা পোল্ট্রি থেকে দূরে থাকার নির্দেশনা দিয়েছে। এছাড়া বাড়ির পেছনের আঙিনায় কাজ করার সময় পৃথক জুতা পরিধান এবং হাত ধোঁয়ার কথা বলেছে। সেই সাথে অন্যান্য পোষা প্রাণীর মত পোষা মুরগিকে স্পর্শ না করার অনুরোধ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: ইসলামকে শান্তিপূর্ণ ধর্ম হিসেবে ইউনেস্কোর স্বীকৃতি দেওয়ার খবরটি ভুয়া

Updated On: 2020-06-30T21:58:43+05:30
Claim :   প্রতিবেদনের দাবি নতুন সালমোনেলা ভাইরাস ছড়াচ্ছে মুরগি
Claimed By :  News Websites
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.