ভিন্ন তরুণীর ছবিকে ভারতের কর্ণাটকের কলেজ ছাত্রী মুসকান বলে দাবি

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, ছবিগুলো নাজমা নাজীর নামের এক ভিন্ন এক তরুণীর, মুসকানের বলা বিভ্রান্তিকর।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি ও পেজ থেকে একজন তরুণীর বেশ কিছু ছবি পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে, সম্প্রতি ভারতের কর্ণাটকে কলেজে হিজাব পরা নিয়ে গেরুয়া উত্তরীয় কাঁধে 'জয় শ্রীরাম' স্লোগান দেয়া একদল তরুণের হাতে হয়রানির শিকার হয়ে 'আল্লাহ আকবর' স্লোগান দেয়া ছাত্রী বিবি মুসকান খানের ছবি এগুলো। ছবিতে হিজাববিহীন এক তরুণীকে দেখা যাচ্ছে এবং সাথে একটি অনলাইন পোর্টালের খবরের স্ক্রিনশটও জুড়ে দেয়া হয়েছে। এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ৯ ফেব্রুয়ারি 'Asad Noor' নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে ছবিগুলো পোস্ট করে ক্যাপশনের এক স্থানে লেখা হয়েছে, " যে মেয়েটি বোরখা পরে কর্নাটকে 'আল্লাহ আকবর' বলে ভাইরাল হয়েছে তার এই ছবিগুলিতে তার মুখ খোলা, তার চুল প্রদর্শিত- তাকে দেখে কি হিন্দু মুসলমান বলে আলাদা করা যাচ্ছে?।" অর্থাৎ, দাবি করা হচ্ছে পোস্টে দেখতে পাওয়া তরুণীই 'আল্লাহ আকবর' স্লোগান দেয়া ছাত্রী বিবি মুসকান খান। পুরো পোস্টের স্ক্রিনশট দেখুন--


একই দাবিতে করা আরও কিছু পোস্টের স্ক্রিনশট দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এখানে

আরেকটি পোস্টের স্ক্রিনশট দেখুন--

পোষ্টটি দেখুন এখানে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, দাবিটি মিথ্যা। ছবিগুলো হিজাব বিতর্কে প্রতিবাদ করে আলোচনায় আসা শিক্ষার্থী মুসকান খানের নয় বরং নাজমা নাজীর নামের এক সমাজকর্মী ও রাজনীতিবিদের।

রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতি ব্যবহার করে, "Nazma Nazeer Chikkanerale" নামের একটি ফেসবুক আইডিতে ভাইরাল পোস্টে যুক্ত করা সবগুলো ছবিই খুঁজে পাওয়া যায়। ছবিগুলো দেখুন--




অর্থাৎ, ছবিগুলো আলোচিত ছাত্রী মুসকান খানের নয়, নাজমা নাজীর নামে ভিন্ন এক তরুণীর। বিভিন্ন সময়ে নাজমা'র ফেসবুক একাউন্টে তার হিজাব পরিহিত এবং হিজাব ছাড়া এমন অসংখ্য ছবি পোস্ট করা হয়েছে।

বিস্তারিত সার্চ করার পর জানা যায়, নাজমা নাজীর মূলত 'জনতা দল (সেকুলার)' নামের একটি ভারতীয় রাজনৈতিক দলের কর্ণাটক শাখার সদস্য ও সমাজকর্মী। কর্নাটকের কয়েকটি কলেজ ক্লাসরুমে হিজাব পরা নিষিদ্ধ করার পর শুরু হওয়া বিতর্কে নাজমা নাজীরকে কন্নড় ভাষী টেলিভিশন চ্যানেলেও আলোচনায় অংশ গ্রহণ করতে দেখা গেছে।

বুম বাংলাদেশের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে ছবিগুলো তার বলে নিশ্চিত করে নাজমা নাজীর বলেন, "কট্টর ডানপন্থী দলগুলো হিজাব নিয়ে বিতর্ক শুরু হলে আমার ছবি নিয়ে এই বাজে প্রচারণা শুরু করে। শিক্ষাঙ্গনে নারীদের অধিকারের বিপক্ষেই অবস্থান থেকেই তাদের এই অপপ্রচার।"

কে এই বিবি মুসকান খান

সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে একটি ভিডিও বিপুলভাবে আলোচিত হয়। ভিডিওর শুরুতে তাকে দেখা যায় নিজে মোটরবাইক চালিয়ে মান্ডিয়া জেলায় পিইএস কলেজ ক্যাম্পাসে ঢুকছেন হিজাব পরিহিত এক তরুণী। মোটরবাইকটি পার্কিং এ রেখে কলেজ ভবনের দিকে যাবার সময় গেরুয়া স্কার্ফধারী একদল তরুণ তার উদ্দেশ্যে 'জয় শ্রীরাম' শ্লোগান দিতে থাকে। তখন তরুণীটিও পাল্টা 'আল্লাহু আকবর' বলে শ্লোগান দিয়ে এগিয়ে যেতে থাকেন। মূলধারার সংবাদ অনুযায়ী তরুণীর নাম বিবি মুসকান খান। ঘটনার পর, বিবি মুসকান ভারতের মূলধারার সম্প্রচার মাধ্যম এনডিটিভিকে ইংরেজিতে একটি সাক্ষাতকারও দিয়েছেন। সাক্ষাৎকারটি দেখুন--

সুতরাং, নাজমা নাজীর নামে ভিন্ন এক তরুণীর ছবি সংগ্রহ করে তা সাম্প্রতিক হিজাব বিতর্কে প্রতিবাদ করা আলোচিত তরুনী মুসকান খানের দাবি করে প্রচার করা হচ্ছে সামাজিক মাধ্যমে, যা মিথ্যা।

Claim :   যে মেয়েটি বোরখা পরে কর্নাটকে ‘আল্লাহ আকবর’ বলে ভাইরাল হয়েছে তার এই ছবিগুলিতে তার মুখ খোলা, তার চুল প্রদর্শিত- তাকে দেখে কি হিন্দু মুসলমান বলে আলাদা করা যাচ্ছে?
Claimed By :  Facebook post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.