ইউক্রেনের সেরা সুন্দরীর অস্ত্র হাতে যুদ্ধে নামার ভুয়া খবর সংবাদমাধ্যমে

ছবিটি ইউক্রেনের সাবেক মিস গ্র্যান্ড আনাস্তাসিয়ার এয়ারসফট খেলার সময়ে তোলা, তাঁর সেনাবাহিনীতে যোগ দেয়ার খবরটি সত্য নয়।

সম্প্রতি মূলধারার একাধিক সংবাদমাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি ও পেজ থেকে ইউক্রেনের সাবেক মিস গ্র্যান্ডের ছবি সহ একটি খবর শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, রাশিয়ার হামলার বিরুদ্ধে দেশকে রক্ষা করতে ইউক্রেনের সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছেন ইউক্রেনের সাবেক মিস গ্র্যান্ড আনাস্তাসিয়া লেনা। এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি অনলাইন সংবাদমাধ্যম Dhakapost.com-এ "রুশ সেনাদের রুখতে বন্দুক হাতে সাবেক মিস ইউক্রেন" শিরোনামে খবরে বলা হয়- " এবার রুশ আগ্রাসনের মুখে অস্ত্র হাতে নিয়েছেন দেশটির সবচেয়ে সুন্দরী নারী ও সাবেক মিস ইউক্রেন। ২০১৫ সালে মিস ইউক্রেন খেতাব জয়ী আনাস্তাসিয়া লেনার বন্দুক হাতে ছবি ইতোমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।রাশিয়ার হামলার বিরুদ্ধে দেশকে রক্ষা করতে ইউক্রেনের সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছেন আনাস্তাসিয়া লেনা। ২০১৫ মিস গ্র্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল বিউটি কনটেস্টে ইউক্রেনের প্রতিনিধি ছিলেন তিনি। লেনা তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে জানিয়েছেন, নিজের দেশ রক্ষার জন্য অস্ত্র হাতে নিয়েছেন তিনি।" স্ক্রিনশটে দেখুন--

ফেসবুক পোস্টটি দেখুন এখানে, খবরের আর্কাইভ দেখুন এখানে

একই খবর প্রকাশ করেছে--

বাংলা ট্রিবিউন- রুশ ঠেকাতে অস্ত্র হাতে সাবেক মিস ইউক্রেন

দৈনিক সমকাল- রাশিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে সাবেক বিশ্বসুন্দরী

জাগোনিউজ২৪ ডটকম- রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধের মাঠে সাবেক মিস ইউক্রেন

এনটিভি অনলাইন- দেশ রক্ষায় হাতে অস্ত্র তুলে নিলেন সাবেক মিস ইউক্রেন

দেশ রূপান্তর- অস্ত্র হাতে যুদ্ধের ময়দানে ইউক্রেন সুন্দরী

বাংলানিউজ২৪ ডটকম- ইউক্রেনের সাবেক সুন্দরী অস্ত্র হাতে যুদ্ধের মাঠে!

দৈনিক আজকের পত্রিকা- যুদ্ধের বিপক্ষে সোচ্চার তারকারা

দৈনিক জনকন্ঠ- যুদ্ধক্ষেত্রে অস্ত্র হাতে মিস ইউক্রেন

দৈনিক ইত্তেফাক- মাতৃভূমি রক্ষায় রাইফেল হাতে যুদ্ধে নামলেন 'মিস ইউক্রেন'!


বাংলাদেশ প্রতিদিন- রুশ সৈন্যের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমেছেন সাবেক মিস গ্রান্ড ইউক্রেন

সহ আরো বেশ কিছু সংবাদমাধ্যম।

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, খবরটি বিভ্রান্তিকর। বিভ্রান্তিকর এই খবরটি ছড়িয়ে পড়লে ২৮ ফেব্রুয়ারি ইন্সটাগ্রামে ভিডিও পোস্ট করে প্রাক্তন এই মিস ইউক্রেন নিজেই দাবিটি খণ্ডন করে জানান, তিনি সামরিক বাহিনির সদস্য নন।

সার্চ করার পর, আনাস্তাসিয়া লেনার ইন্সটাগ্রাম একাউন্টে অস্ত্র হাতে একাধিক ছবি খুঁজে পাওয়া যায়। যার মধ্যে বাংলাদেশী সংবাদমাধ্যমগুলোতে ব্যবহার করা ছবিগুলোও আছে। ইউক্রেনের সাবেক এই মিস গ্র্যান্ডের ইন্সটাগ্রাম একাউন্ট থেকে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি অস্ত্র হাতে এমন একটি ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লেখা হয়, "22.02.2022 🇺🇦 #standwithukraine #handsoffukraine।"

বিভ্রান্তির শুরু

মূলত এই ছবিটিকে কেন্দ্র করেই বিভ্রান্তির শুরু হয়। ইংরেজিভাষী কিছু সংবাদমাধ্যম ছবিটিকে প্রাক্তন মিস ইউক্রেনের রাশিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে যুদ্ধ নামার ছবি দাবিতে বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রচার করে।

পরে এসব খবরের সূত্র উল্লেখপূর্বক বা উল্লেখ ব্যতিত বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমগুলোও অস্ত্র হাতে প্রাক্তন মিস ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর হয়ে যুদ্ধে যোগদানের ছবি দাবিতে সংবাদ প্রচার করা হয়। কিন্তু ইংরেজিভাষী এসব সংবাদমাধ্যমের খবরটিও সঠিক নয়।

বিভ্রান্তির খণ্ডন

ইউক্রেনের সাবেক এই মিস গ্র্যান্ডের ছবিটিকে কেন্দ্র করে বিভ্রান্তিকর খবর ছড়িয়ে পরলে ২৮ ফেব্রুয়ারি ইন্সটাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করে ক্যাপশনে বিভ্রান্তিকর দাবিটি খণ্ডন করে তিনি জানান, তিনি একজন সাধারন নাগরিক, সামরিক বাহিনির সদস্য নন। ভাইরাল এই ছবিটি মূলত 'এয়ারসফট' নামের এক গেম খেলার সময় তোলা হয়েছিল, খেলাটি তিনি প্রায়ই খেলে থাকেন। রাশিয়ানদের হাত থেকে আমাদের দেশকে মুক্ত করার জন্য প্রার্থনা করেছেন জানিয়ে তিনি তাঁর প্রোফাইলের সমস্ত ছবি মানুষকে অনুপ্রাণিত করার জন্য পোস্ট করা হয়েছে বলেও দাবি করেন। ক্যাপশনে তিনি আরও জানান, হাজারো বাসিন্দাদের মত এই যুদ্ধে তিনিও সাধারণ জীবনযাপন করছেন।

প্রসঙ্গত, এয়ারসফট হল একটি দলগত খেলা যেখানে অংশগ্রহণকারীরা প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দেরকে গোলাকার প্লাস্টিক ছোট বল ঢুকিয়ে এয়ারসফট বন্দুক দিয়ে গুলি করে।

বন্দুক হাতে প্রাক্তন মিস গ্র্যান্ড ইউক্রেন আনাস্তাসিয়া লেনার 'এয়ারসফট' খেলার আরো ছবি বিভিন্ন সময়ে ইন্সটাগ্রাম একাউন্টে পোস্ট করতে দেখা গেছে। দেখুন--


অর্থাৎ, ছবিটি সাবেক এই গ্র্যান্ডের 'এয়ারসফট' খেলার, যুদ্ধে অংশগ্রহণের নয়। উল্লেখ্য প্রাক্তন মিস ইউক্রেন আনাস্তাসিয়া লেনা ২০১৫ সালে মিস গ্র্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল সুন্দরী প্রতিযোগিতায় তাঁর দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করে জয়ী হন।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ফ্যাক্ট চেকিং সংস্থা 'স্নোপস' ও 'পলিটিফ্যাক্ট' খবরটি যাচাই করে বিভ্রান্তিকর হিসেবে সাব্যস্ত করে প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

সুতরাং ইউক্রেনের প্রাক্তন মিস গ্র্যান্ড আনাস্তাসিয়ার রাশিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র হাতে সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়ে যুদ্ধে শুরু করার ভুয়া খবর প্রচার করা হচ্ছে একাধিক দেশীয় গণমাধ্যমে।

Updated On: 2022-03-10T02:39:34+05:30
Claim :   রুশ সেনাদের রুখতে বন্দুক হাতে সাবেক মিস ইউক্রেন
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.