পুলিশের হাতে আটক ব্যক্তিকে মাশরাফির ভাই বলে ভুয়া দাবি ফেসবুকে

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, প্রচারিত ভিডিওটি ২০১৮ সালে ইয়াবা পাচারের সময় শাহজালাল বিমানবন্দরে আটক এক ব্যক্তির।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি ও পেজ থেকে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সাংসদ মাশরাফি বিন মর্তুজার ভাই দাবি করে একটি ভিডিও প্রচার করা হচ্ছে। ভিডিওটিতে দেখা যায়, সন্দেহভাজন এক ব্যক্তির শরীর তল্লাশি করে মাদকের সন্ধান পায় পুলিশ। ভাইরাল হওয়া পোস্টগুলো দেখুন এখানে, এখানে, এখানে

"মন পাখি" নামের একটি ফেসবুক একাউন্ট থেকে ভিডিওটি পোস্ট করে ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, "ব্রেকিং নিউজ,,, নড়াইলের মাসরাফির ছোট ভাই আওয়ামীলিগের সন্ত্রাসি ইয়াবা নিয়েই আটক🤦🏻‍♂️🤦🏻‍♂️"। অর্থাৎ, দাবি করা হচ্ছে আটককৃত ব্যক্তি মাশরাফির ছোটভাই।

আর্কাইভ লিংক দেখুন এখানে

২০১৮ সাল থেকে বিভিন্ন সময় ভিডিওটি একই দাবিতে একাধিক ফেসবুক পেজ ও আইডি থেকে পোস্ট করতে লক্ষ্য করা গেছে। এ সংক্রান্ত সার্চিংয়ে পাওয়া ফলাফল দেখুন--



ফ্যাক্ট চেক

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে ভাইরাল ভিডিওটির শিরোনামে করা দাবিটির কোন সত্যতা পায়নি। মূলত, ২০১৮ সালে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ইয়াবাসহ আটক এক ব্যক্তির ভিডিওকে মাশরাফি বিন মর্তুজার ভাই দাবি করে ফেসবুকে প্রচার করা হচ্ছে; যা বিভ্রান্তিকর।

রিভার্স সার্চিং টুলের মাধ্যমে ২০১৮ সালের ৯ নভেম্বর প্রকাশিত দৈনিক ইত্তেফাকের অনলাইন ভার্সনে এই ভিডিও সম্পর্কিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া গেছে। 'শাহজালালে খোরমার ভেতর ইয়াবা (ভিডিওসহ)' শিরোনামে প্রতিবেদনটিতে প্রকাশিত ব্যক্তির ছবির সাথে ভাইরাল ভিডিওটির ব্যক্তির চেহারা নিখুঁতভাবে মিলিয়ে দেখে একই ব্যক্তি বলে নিশ্চিত হয়েছে বুম বাংলাদেশ। দৈনিক ইত্তেফাকের খবর ও ভাইরাল ভিডিওটি থেকে নেয়া স্ক্রিনশট পাশাপাশি দেখুন নিচে-


ওই প্রতিবেদনে দৈনিক ইত্তেফাক বলছে, রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের গ্রিন চ্যানেল পার হওয়ার সময় আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ইয়াবাসহ চারজনকে আটক করে। তাদের নাম- রুবেল, জালাল, নাহিদ এবং সাব্বির। এরমধ্যে রুবেলের বাড়ি নড়াইল সদরের লঙ্কারচর এলাকায়। তার বাবার নাম সাহেদ আলী। বাকি তিনজনের বাড়ি কক্সবাজার এবং খুলনায়। অপরদিকে ক্রিকেটার মাশরাফির বাবার নাম গোলাম মর্তুজা স্বপন। অর্থাৎ, আটককৃত একজনের বাড়ি নড়াইলে হলেও তিনি মাশরাফি বিন মর্তুজার ভাই নন।

দৈনিক ইত্তেফাকের প্রতিবেদনটি দেখুন এখানে
এই ঘটনা সম্পর্কিত আরো প্রতিবেদন দেখুন
এখানে।

এছাড়া, বিভিন্ন কি-ওয়ার্ড দিয়ে সার্চের পরে ইউটিউবে "ইয়াবার খুরমা খেজুর!!!" শিরোনামে ভাইরাল ভিডিওর মূল ভার্সনটিও খুঁজে পাওয়া গেছে। যা 'Alamgir Hossain Shimul' নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৮ সালের ৯ নভেম্বর আপলোড করা হয়। ইউটিউব ভিডিওর বর্ণনায়ও ঘটনাটি শাহজালাল বিমানবন্দরের বলে উল্লেখ করা হয়েছে।



প্রসঙ্গত, মাশরাফি বিন মর্তুজার একমাত্র ছোট ভাইয়ের নাম মোরসালিন বিন মুর্তজা। যিনি নিজেও একজন ক্রিকেটার।

ছবি: মোরসালিন বিন মর্তুজার ফেসবুক থেকে নেয়া

অতএব, বিষয়টি স্পষ্ট যে ইয়াবা'সহ শাহজালাল বিমানবন্দরে পুলিশের হাতে আটক ব্যক্তির ভিডিও বিভ্রান্তিকর ভাবে মাশরাফির ভাই হিসাবে প্রচার করা হচ্ছে ফেসবুকে।

Updated On: 2021-06-08T10:34:38+05:30
Claim Review :   ক্রিকেটার মাশরাফির ছোট ভাই ইয়াবাসহ আটক
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story