দেবীগঞ্জে হিন্দুবাড়িতে অগ্নি দুর্ঘটনার ভিডিও ভুয়া দাবিতে প্রচার

ঘরের ভেতরে স্থাপিত চুল্লি থেকে আগুন লেগেছে বলে জানিয়েছেন বাড়ির মালিক, সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বলে প্রচার করা বিভ্রান্তিকর।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি ও পেজ থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে, পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে আজ সকালে হিন্দু বাড়িতে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ছবিতে আগুনে একটি ঘর জ্বলতে দেখা যায়। এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ১৯ অক্টোবর "All Sanatan Family" নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে ভিডিওটি পোস্ট করে বলা হয়, পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে ভোরে হিন্দু বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। বাড়ির মালিক পরিমল শ্বশুড় বাড়ি ছিলেন এবং রাত ২টার পর বিদ্যুৎ না থাকায় অন্ধকারে কেউ ঘরে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। পোস্টের স্ক্রিনশট দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এখানে

অর্থাৎ দাবি করা হচ্ছে এই অগ্নিসংযোগের ঘটনা সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অংশ।

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, ভিডিওর বর্ণনায় করা দাবিটি সঠিক নয় এবং বাড়ির মালিকের নাম পরিমল নয়। গণমাধ্যমকে দেবীগঞ্জের ওই বাড়ির মালিক অনুকূল চন্দ্র রায় জানান, ঘরের ভেতরে স্থাপিত কলা পাকানোর চুল্লি থেকে আগুন লাগে, বিষয়টি থানায় পুলিশকে লিখিতভাবেও জানিয়েছেন তিনি।

সামাজিক মাধ্যমে দেবীগঞ্জের হিন্দু বাড়িতে আগুনের সাথে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার সংযোগ দেখিয়ে প্রচার শুরু হলে অনলাইন ভিত্তিক গণমাধ্যম নিউজবাংলা২৪ ডটকম দেবীগঞ্জের ওই বাড়ির মালিক অনুকূল চন্দ্র রায়ের সাথে কথা বলে আজ ২০ অক্টোবর "দেবীগঞ্জে হিন্দুবাড়িতে আগুন চুল্লির, যতনকে নিয়ে ভুয়া ভিডিও" শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ করে। স্ক্রিনশট দেখুন--

প্রতিবেদনটি পড়ুন এখানে

প্রতিবেদনে লেখা হয়,

"দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়নের দারারহাট অধিকারী পাড়া গ্রামের কলা ব্যবসায়ী অনুকূল চন্দ্র রায়ের বাড়িতে মঙ্গলবার ভোররাত ৪টার দিকে আগুন লাগে। স্থানীয়দের সহায়তায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় তা নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিস।

ব্যবসায়ী অনুকূল নিউজবাংলাকে জানান, স্থানীয় হাট থেকে কাঁচা কলা কিনে চুল্লিতে পাকিয়ে বাজারে বিক্রি করেন তিনি। দুর্গাপূজা উপলক্ষে সোমবার তিনি ছাড়া বাড়ির সবাই আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। রাত ৯টার দিকে তিনি ঘরের ভেতরে স্থাপিত চুল্লিতে আগুন দিয়ে তার ওপর কলা রেখে পাশের ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন।

ভোররাতে হঠাৎ ঘুম ভাঙার পর দেখতে পান চুল্লির আগুন পুরো ঘরে ছড়িয়ে পড়েছে। বিষয়টি স্থানীয় থানায় লিখিতভাবেও জানিয়েছেন অনুকূল।

দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল হোসেন নিউজবাংলাকে বলেন, 'আগুন কীভাবে লেগেছে, তা উল্লেখ করে অনুকূল চন্দ্র পুলিশের কাছে বিবৃতি দিয়েছেন। বিষয়টিকে নাশকতা হিসেবে প্রচারের জন্য একটি মহল তৎপরতা চালাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।'

দেবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রত্যয় হাসান নিউজবাংলাকে বলেন, 'দেশের সাম্প্রতিক কিছু ঘটনায় একটি মহল দাঙ্গা সৃষ্টির চেষ্টা চালাচ্ছে। দেবীগঞ্জের ঘটনাটিকেও ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা প্রচার চালানো হচ্ছে। আমরা সমন্বিতভাবে তা প্রতিহত করছি।...

দেবীগঞ্জ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শ্যামল দত্ত নিউজবাংলাকে বলেন, 'আমাদের এলাকায় হিন্দু-মুসলিমদের মধ্যে দারুণ সম্পর্ক। অপপ্রচার চালিয়ে একটি মহল সেই সম্প্রীতি নষ্ট করার চেষ্টা চালাচ্ছে। আমরা সে বিষয়ে সজাগ আছি।'' স্ক্রিনশট দেখুন-



অর্থাৎ বাড়ির মালিক অনুকূল চন্দ্র, দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল হোসেন, দেবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রত্যয় হাসান ও এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতারা নিউজবাংলাকে জানিয়েছেন বাড়িতে আগুন লাগার ঘটনাটি একটি দূর্ঘটনা, এর সাথে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার কোনো সম্পর্ক নেই।

সুতরাং দেবীগঞ্জে হিন্দুবাড়িতে চুল্লি থেকে দূর্ঘটনাক্রমে লাগা আগুনের ভিডিওকে সাম্প্রদায়িক দাবিতে ভুয়া প্রচার করা হচ্ছে ফেসবুকে, যা বিভ্রান্তিকর।

Claim :   পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে আজ সকালে হিন্দু বাড়িতে শান্তির দলের আগুন... 🙂 (এংরি 😡 রিয়েক্ট দিবেন না, রিচ কমে যায়)
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.