ভুয়া ওয়েবসাইটে ইলিয়াস আলীর স্ত্রীর বরাত দিয়ে ভুয়া খবর প্রচার

sylhet-tribune.com নামের পোর্টালটি ভুয়া, "ইলিয়াস আলীকে নিয়ে নেত্র নিউজে ৮০% তথ্য ভুল : লুনা" শিরোনামের খবরটি ভিত্তিহীন।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি, পেজ ও গ্রুপে একটি খবরের লিংক শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, ২০১২ সালে গুম হওয়া বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলীর স্ত্রী বলেছেন, তাঁর স্বামীকে নিয়ে সম্প্রতি প্রকাশিত একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের ৮০ শতাংশই ভুল। এমন কয়েকটি লিংক দেখুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

গতকাল ১৮ এপ্রিল "Goni Abdul" নামের একটি ফেসবুক আইডি থেকে "আমরাই বাংলাদেশ - Amrai Bangladesh" নামের একটি ফেসবুক গ্রুপে 'sylhet-tribune.com' নামের একটি অনলাইন পোর্টালের লিংক শেয়ার করে লেখা হয়, "ইলিয়াস আলীকে নিয়ে নেত্র নিউজে ৮০% তথ্য ভুল : লুনা"। দেখুন ওই পোস্টের স্ক্রিনশট--


হুবহু একই শিরোনামে প্রকাশিত খবরের বিস্তারিত অংশে দেখা যায় খবরটি প্রকাশের তারিখ বা ডেটলাইনও ১৮ এপ্রিল ২০২২। এছাড়া খবরটিতে বলা হয়, "কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য নিখোঁজ এম ইলিয়াস আলীকে নিয়ে গতকাল সুইডেন ভিত্তিক অনলাইন পোর্টাল নেত্র নিউজ একটি সংবাদ প্রচার করে। সেই সংবাদে ইলিয়াস আলীর গুম হওয়ার বিষয়টি কাল্পনিকভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করা হয়। প্রায় ১৪ মিনিটের 'ভিডিও ও টেকস্ট কনটেন্টে' যেসব তথ্য নেত্র নিউজ দিয়েছে তার ৮০ ভাগই ভুল বলে দাবি করেছেন ইলিয়াস পত্নী তসলিমা রশিদ লুনা। আজ সোমবার সকালে সিলেটের অনলাইন গণমাধ্যম 'সিলেট ট্রিবিউনের' সাথে আলাপকালে এমন দাবি করেন লুনা।........." দেখুন পুরো খবরের স্ক্রিনশট--

খবরটি পড়ুন এখানে

কিছু পেজ থেকে খবরটি ইলিয়াস আলী ও তাঁর স্ত্রীর কোলাজ ছবি দিয়ে করে "বিস্তারিত কমেন্টে" লিখেও পোস্ট করতে দেখা গেছে, যেখানে কমেন্টে 'sylhet-tribune.com' নামের অনলাইন পোর্টালটির লিংক দেয়া আছে। "Voice of Bangladesh" নামের একটি পেজ করা এমন একটি পোস্টের স্ক্রিনশট দেখুন--


ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, খবরটি ভিত্তিহীন। বিএনপির নিখোঁজ নেতা ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসীনা রুশদীর লুনা তাঁর বরাতে প্রকাশিত এই খবরটি ভিত্তিহীন ও বানোয়াট বলে দাবি করেন। সংশ্লিষ্ট অনলাইন পোর্টাল "sylhet-tribune.com" এর ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে পোর্টালটির কোন কর্তৃপক্ষের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তবে সিলেট ট্রিবিউন (www.sylhettribune.com) নামের একটি পোর্টালের ফেসবুক পেজ থেকে গত মধ্যরাতে একটি ঘোষণা দিয়ে পোস্ট করা হয়, তাদের কার্যক্রম আপাতত বন্ধ রয়েছে, সরকারের অনুমোদন পেলে তারা আবারো কার্যক্রম শুরু করবে। পাশাপাশি তাদের নামে কে বা কারা একটি পোর্টাল পরিচালনা করছেন জানিয়ে এতে বিভ্রান্ত না হওয়ারও আহ্বান জানানো হয় ওই পেজ থেকে। ঘোষণাটির শেষে লেখা হয় "সিলেট ট্রিবিউন কর্তৃপক্ষ"

আলোচ্য "sylhet-tribune.com" এর খবরটি নিয়ে প্রথমত লক্ষ্যণীয় বিষয় হচ্ছে, প্রতিবেদনটিতে ইলিয়াস আলীর স্ত্রীর নাম 'তাহসিনা রুশদি লুনা' এর পরিবর্তে ভুলভাবে লেখা হয়েছে 'তসলিমা রশিদ লুনা'। দেখুন--


দ্বিতীয়ত, প্রতিবেদনটির সত্যতা জানতে ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসীনা রুশদীর লুনার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বুম বাংলাদেশকে জানান, তিনি কোনো সংবাদমাধ্যমের সাথে এমন কথা বলেননি। "sylhet-tribune.com" এর লিংকটি তাকে পাঠানো হলে তিনি বলেন এমন নামের কোনো সংবাদমাধ্যম তিনি চেনেন না এবং কথাও বলেননি। পাশাপাশি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে লুনা বলেন, তিনি এমন কথা বলেছেন এমন রেকর্ড থাকলে যেন তা প্রকাশ করা হয়।

তৃতীয়ত, ইলিয়াস আলীর গুমের এক দশক পর গতকাল ১৮ এপ্রিল রাজধানী ঢাকার গুলশানের একটি হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিয়েছেন তাঁর স্ত্রী লুনা। সেখানে তিনি বলেন, ''আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকেরাই যে ইলিয়াস আলীকে তুলে নিয়ে গেছেন, এটা নিশ্চিত। আর ঘটনার পর তাঁকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে খুদে বার্তা পাঠিয়ে সাক্ষাতের আয়োজন এবং ইলিয়াস আলীকে খুঁজে বের করার আশ্বাস ছিল লোক দেখানো।'' sylhet-tribune.com-এ লুনার বরাতে যেসব কথা বলা হয়েছে সেরকম কিছু এই অনুষ্ঠানেও বলেননি তিনি। প্রথম আলোর এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট দেখুন--

প্রথম আলোর প্রতিবেদনটি পড়ুন এখানে

চতুর্থত, লুনার এমন বক্তব্যের কোনো রেকর্ড আছে কিনা জানতে 'sylhet-tribune.com' নামক পোর্টালের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের জন্য ওয়েবসাইটটি ঘেঁটে কোনো মোবাইল বা ফোন নম্বর কিংবা ঠিকানা পাওয়া যায়নি।

'সিলেট ট্রিবিউন' নামক ওয়েবসাইটটির কোনো যোগাযোগ নম্বর পাওয়া যায় কিনা দেখতে sylhet tribune লিখে গুগল সার্চ করা হয়। এতে একই নামে একটি ফেসবুক পেজ পাওয়া যায় যেখানে www.sylhettribune.com নামে একটি ওয়েবসাইটের নামের সন্ধান পাওয়া যায়, যেটির ডোমেইন কিংবা হোস্টিং বর্তমানে মেয়াদোত্তীর্ণ। তাই এই লিংকে প্রবেশ করা যায়নি।

এদিকে ''sylhet tribune contact'' লিখে সার্চ করে একটি মোবাইল নম্বর পায় বুম বাংলাদেশ। ওই নম্বরে কল দিলে অপরপ্রান্ত থেকে একজন রিসিভ করে তিনি বলেন, www.sylhettribune.com ওয়েবসাইটি তিনি এক সময় পরিচালনা করতেন, বর্তমানে সেটি বন্ধ আছে। একই নামে অন্য আরেকটি ওয়েবসাইট চালানো হচ্ছে বলে তাঁর দৃষ্টিগোচর হয়েছে। তবে কারা চালাচ্ছে তা তিনি জানেন না বলে উল্লেখ করেন। এ সময় তিনি তাঁর নাম প্রকাশ করতে অনীহা প্রকাশ করেন।

এর কিছুক্ষণ পরই ওই পেজ থেকে একটি ডিসক্লেইমার দেয়া হয় এই মর্মে যে, তাদের কার্যক্রম আপাতত বন্ধ রয়েছে, সরকারের অনুমোদন পেলে তারা আবারো কার্যক্রম শুরু করবে। পাশাপাশি তাদের নামে অর্থাৎ 'সিলেট ট্রিবিউন' নামে কে বা কারা একটি পোর্টাল পরিচালনা করছেন জানিয়ে এতে বিভ্রান্ত না হওয়ারও আহ্বান জানানো হয় ওই পেজ থেকে। ডিসক্লেইমারটির নিচে লেখা হয় "সিলেট ট্রিবিউন কর্তৃপক্ষ"। ফেসবুক পোস্টের স্ক্রিনশট দেখুন--


উক্ত ফেসবুক পোস্টটি দেখুন--

এদিকে, 'sylhet-tribune.com'- এর Contact সেকশনে যোগাযোগের জন্য কার্যত কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। ওয়েব পোর্টালটি পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, এটি একটি ভুয়া ওয়েবসাইট। একটি নিউজ পোর্টালের অপরিহার্য যা যা বৈশিষ্ট্য থাকা দরকার, এর কিছুই পোর্টালটিতে বিদ্যমান নেই। একটি নিউজ পোর্টালের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হল এর একটি 'MUST HEAD' (মাস্ট হেড) থাকা এবং 'LOGO' (লগো) থাকা। পোর্টালটিতে তা নেই, দেখুন মাস্ট হেড ও লগো'র জায়গা ফাঁকা দেখাচ্ছে--


এরপর পোর্টালটির 'Contact Us' (কন্টাক্ট আস) অপশনে গেলে দেখা যায় সেখানে এলোমেলোভাবে অপ্রাসঙ্গিক কিছু ইংরেজি বর্ণনা দেয়া হয়েছে এবং পরে একটি ঠিকানা দেয়া আছে। এই অংশের দেখুন স্ক্রিনশট--


'Contact Details' (কন্টাক্ট ডিটেইলস্)-এ উল্লেখিত ঠিকানা দিয়ে গুগল সার্চ করার পর একই রকম 'ঠিকানা ও বর্ণনা' দেয়া আছে এমন অসংখ্য ওয়েবসাইটের খোঁজ পাওয়া গেছে। তন্মধ্যে স্ক্রিনশট সহ দুটি উদাহরণ দেখুন--

ওয়েবসাইটটির লিংক দেখুন এখানে

আরেকটি ওয়েবসাইটের স্ক্রিনশট দেখুন--

ওয়েবসাইটটির লিংক দেখুন এখানে

'sylhet-tribune.com'- এর Contact us (কন্টাক্ট আস) ও পরবর্তী দুটি ওয়েবসাইটের Contact us সেকশনে একই রকম লেখা রয়েছে, পরপর যা দেখেছেন।

অন্যদিকে, ওয়েবসাইটের একদম নিচের অংশে 'About us' সেকশনে একটি ইমেইল এড্রেস দেয়া আছে: contact@sylhettribune.com। লক্ষ্যণীয় যে, খবর প্রকাশকারী ওয়েবসাইটটির ডোমেইন হচ্ছে sylhet-tribune.com; কিন্তু ইমেইল এড্রেসের ডোমেইন হচ্ছে sylhettribune.com। অর্থাৎ এখানে তাদের ডোমেইনের সাথে তাদের দেয়া ইমেইল এড্রেসের সামঞ্জস্য পাওয়া যায়নি। তদুপরি উক্ত ইমেইল এড্রেসে বার্তা পাঠানোর পর সেটি ডেলিভারিও হয়নি। দেখুন পোর্টালটির 'About us' সেকশনের স্ক্রিনশট--


অর্থাৎ ওয়েবসাইটটি বা নিউজ পোর্টালটি বিস্তারিত পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, এটি ঠিকানা ও কর্তৃপক্ষহীন একটি ওয়েবসাইট। যে ওয়েবসাইটের মাস্ট হেড নেই, লগো নেই, About us নেই, ইমেইল এড্রেস ভুল ও অকার্যকর, Contact us সেকশনে অপ্রাসঙ্গিক লেখা এবং কমন ঠিকানা, ফোন ও ফ্যাক্স নম্বর দেয়া রয়েছে, যে ঠিকানা, ফোন ও ফ্যাক্স নম্বর শত শত ভুয়া ওয়েবসাইটে উল্লেখ রয়েছে-- বলা বাহুল্য যে এটি একটি ভুয়া ওয়েবসাইট।

উল্লেখ্য গত ১৭ এপ্রিল বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলীর গুমের রহস্য উদঘাটন সংক্রান্ত একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে নেত্র নিউজ নামের সুইডেন ভিত্তিক একটি সংবাদ মাধ্যম। এর প্রেক্ষিতেই ভুয়া ওয়েবসাইটে আলোচ্য খবরটি প্রকাশিত হয়।

সুতরাং ইলিয়াস আলীর স্ত্রীর বরাত দিয়ে কর্তৃপক্ষহীন ভুয়া অনলাইন পোর্টালের লিংকের মাধ্যমে ভুয়া খবর ছড়ানো হচ্ছে ফেসবুকে, যা বিভ্রান্তিকর।

Claim :   ইলিয়াস আলীকে নিয়ে নেত্র নিউজে ৮০% তথ্য ভুল : লুনা
Claimed By :  Facebook post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.