সংসদ থেকে বিএনপি এমপিদের পদত্যাগের ভুয়া খবর প্রচার

গত ২১ নভেম্বর খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তাঁর চিকিৎসার জন্য বিদেশ পাঠানোর দাবিতে দলটির সাংসদদের মানববন্ধনের ভিডিও এটি।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি ও পেজ থেকে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, বিএনপির সংসদ সদস্য হারুন অর রশীদ ও রুমিন ফারহানা পদত্যাগ করেছেন। এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ৯ এপ্রিল 'Breaking News BDr' নামের ফেসবুক পেজ থেকে ভিডিওটি পোস্ট করে লেখা হয়, "সংসদ পদত্যাগ করলেন হারুন ও রুমিন! কিন্তু কেন?।" অর্থাৎ দাবি করা হচ্ছে এই দুই সাংসদ পদত্যাগ করেছেন। স্ক্রিনশট দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এখানে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, দাবিটি অসত্য । ২০২১ সালের ২১ নভেম্বর বিএনপির চেয়ারপাসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তাঁর সুচিকিৎসা নিশ্চিতে বিদেশ পাঠানোর দাবিতে দলটির নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের মানববন্ধনের ভিডিও পোস্ট করে বিভ্রান্তিকরভাবে পদত্যাগের খবর প্রচার করা হচ্ছে।

কিওয়ার্ড ধরে সার্চ করার পর, দৈনিক যুগান্তরের অনলাইন সংস্করণে ২০২১ সালের ২১ নভেম্বর "সংসদ থেকে পদত্যাগের হুমকি বিএনপি এমপিদের" প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, বিএনপির চেয়ারপাসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তাঁর সুচিকিৎসা নিশ্চিতে বিদেশ পাঠানোর দাবিতে সে সময় দলটির সংসদ সদস্যরা মানববন্ধন করেন। মানববন্ধন থেকে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে চিকিৎসার জন্য বিদেশ না পাঠালে সংসদ থেকে পদত্যাগের হুমকি দেন তাঁরা প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট দেখুন--

খবরটি পড়ুন এখানে

উক্ত মানববন্ধনের ভিডিও সম্প্রচার মাধ্যম যমুনা টেলিভিশনের ইউটিউবে চ্যানেলেও একই দিনে আপলোড করতে দেখা গেছে।

খেয়াল করলে দেখা যায়, যমুনা টেলিভিশনের ইউটিউব ভিডিও এবং ভাইরাল ভিডিওটিতে বিএনপির সংসদ সদস্য হারুন অর রশীদের পাশে একই ব্যক্তিকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। অর্থাৎ ভিডিওটি ২০২১ সালের একই ঘটনার।

ইউটিউব ভিডিও (বামে) এবং ভাইরাল ফেসবুক পোস্টের (ডানে) পাশাপাশি স্ক্রিনশট

সার্চ করার পর, গত ২০২২সালের ৩১ মার্চ দৈনিক যুগান্তরের অনলাইন সংস্করণে "৫০ বছরের ইতিহাসে এটা নজিরবিহীন ঘটনা: হারুন" শিরোনামে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়। প্রতিবেদনে, সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ফল নিয়ে জটিলতার সৃষ্টি হওয়ায় বিএনপির সংসদ সদস্য হারুন অর রশীদের সংসদে সমালোচনার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। আবার ০৬ এপ্রিল "দাম নিয়ন্ত্রণ করতে না পারায় সংসদে ক্ষোভ" শিরোনামে দৈনিক প্রথম আলো'র অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত খবরে সংসদে বিএনপিদলীয় সাংসদ রুমিন ফারহানার বক্তব্য উদ্ধৃত করা হয়।

অর্থাৎ দুজন সাংসদই পদে বহাল আছেন, পদত্যাগ করেননি।

সুতরাং পুরোনো ভিডিও প্রচার করে বিএনপির সংসদ সদস্য হারুন অর রশীদ ও রুমিন ফারহানা'র সংসদ থেকে পদত্যাগের ভুয়া খবর প্রচার করা হচ্ছে, যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

Updated On: 2022-04-15T22:31:02+05:30
Claim :   সংসদ পদত্যাগ করলেন হারুন ও রুমিন! কিন্তু কেন
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.