যুগান্তরের 'দু;খিত' হওয়ার স্ক্রিনশটটি বানোয়াট

মূলত যুগান্তর পত্রিকার অনলাইন ভার্সনের ৫ এপ্রিলের একটি খবর এডিট করে ফেসবুকে ছড়ানো হয়েছে।

সবুকে যুগান্তর পত্রিকার একটি খবরের স্ক্রিনশট দিয়ে দাবি করা হচ্ছে, ছবিতে প্রদর্শিত নারীটি মামুনুল হকের স্ত্রী নন। এই ভুল খবরের জন্যে যুগান্তর দুঃখ প্রকাশ করেছে। দেখুন এমন দুটি পোস্টের লিংক এখানে এবং এখানে

Joynal Abedin নামের আইডি থেকে যুগান্তর পত্রিকার একটি স্ক্রিনশট পোস্ট করা হয় যার শিরোনাম ছিল, 'এই মেয়েটি মামুনুল হকের স্ত্রী ছিল না, ভুল প্রচারের জন্যে দুঃখিত'। দেখুন উক্ত পোস্টটির একটি স্ক্রিনশট--

পোষ্টটির আর্কাইভ লিংক দেখুন এখানে

ফ্যাক্টচেকঃ

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, যুগান্তর পত্রিকার সেই স্ক্রিনশটটি এডিট করা। ভাইরাল হওয়া স্ক্রিনশটে নীল বোরকার সেই নারী এবং মামুনুল হককে দেখা যাচ্ছে।

এছাড়া খবরের শিরোনামের নিচের অংশে দেখা যাচ্ছে, 'হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে সোনারগাঁও এর' লেখা।

উক্ত ছবি এবং শিরোনামের নিচের অংশের সাথে যুগান্তর পত্রিকার ভিন্ন একটি খবর হুবহু মিলে যায়। দেখুন যুগান্তরের সেই খবরটির স্ক্রিনশট--

যুগান্তর পত্রিকার খবরটি দেখুন এখানে।

গতকাল ৫ এপ্রিল যুগান্তরের ফেসবুক পেইজে সেই খবরটি পোস্ট করা হয় যার শিরোনাম ছিল, 'মামুনুল হককে অবরুদ্ধ, সোনারগাঁও থানার ওসি বদলি'। মূলত এই ছবিটিকে এডিট করেই নতুন শিরোনাম যুক্ত করা হয়েছে।

এছাড়া ভাইরাল হওয়া স্ক্রিনশটের শিরোনামটি সার্চ করে যুগান্তর পত্রিকায় এমন কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

অর্থাৎ মামুনুল হকের দ্বিতীয় স্ত্রী সংক্রান্ত ভুল খবর প্রচারে দুঃখ প্রকাশ করার স্ক্রিনশটি বানোয়াট।

Claim Review :   মেয়েটি মামুনুল হকের স্ত্রী ছিলনা: যুগান্তরের দুঃখ প্রকাশ
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story