তালেবানের সমর্থনে নারী সমাবেশের এই ছবিটি এডিট করা

মূলধারার গনমাধ্যমে এবং সাংবাদিকদের টুইটার একাউন্টে আসল ছবিটি খুঁজে পেয়েছে বুম বাংলাদেশ।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে, এটি আফগানিস্তানের নারী শিক্ষা কার্যক্রমের ছবি। দেখুন এমন দুটি পোস্ট এখানে এবং এখানে

গত ১১ সেপ্টেম্বর 'নূরুল আজিম রনি' নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে একটি ছবি পোস্ট করে দাবি করা হয় এটি আফগানিস্তানের নারী শিক্ষা কার্যক্রমের ছবি। ছবিটিতে দেখা যায় বেশ কিছু বোরকা পরা নারী একটি সেমিনার রুমে বসে আছেন এবং তাদের মধ্যে একজনের মুখ খুলে রাখা, যাকে দেখতে কিছুটা পুরুষের মত দেখাচ্ছে। দেখুন পোস্টটির স্ক্রিনশট--


ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, ছবিটি এডিট করা। রিভার্স ইমেজ সার্চিং টুল ব্যবহার করে আসল ছবিটি পাওয়া গেছে। গত ১১ সেপ্টেম্বর কাবুলভিত্তিক সংবাদমাধ্যম টোলো নিউজের প্রধান লুতফুল্লাহ নাজাফিজাদাহ তার ভেরিফায়েড টুইটার একাউন্টে আসল ছবিটি পাওয়া গেছে। দেখুন তাঁর টুইটটি--

আরো বিস্তারিত সার্চ করে এই একই ছবির আরেকটি ভার্সন পাওয়া গেছে, ইন্ডিয়া টুডে'তে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে। আজ ১২ সেপ্টেম্বর এএফপি'র বরাতে প্রকাশিত খবরটির শিরোনাম, 'Veiled protest: 300 Afghan women rally in support of the Taliban'। দেখুন খবরটি--


ইন্ডিয়া টুডে'র খবরটিতে বলা হয়, ৩০০ নারীকে কাবুলের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের লেকচার থিয়েটারে এভাবে তালেবানের সমর্থনে পতাকা উড়াতে দেখা গেছে। সেখানে ছবিটির সোর্স হিসেবে টুইটারকে উল্লেখ করা হয়েছে।

এছাড়া একই ঘটনার আরেকটি ছবি পাওয়া গেছে রুশ সংবাদমাধ্যম আরটি'র একটি প্রতিবেদনে। দেখুন--


আরটির খবরটিতে বলা হয়, ছবিটি মূলত শহীদ রাব্বানি এডুকেশন ইউনিভার্সিটির ছাত্রীদের যাদের হাতে দেখা যাচ্ছে তালেবানের পতাকা। ছবিটি তুলেছেন এএফপি'র আমির কুরেশী। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি পড়ুন এখানে

অর্থাৎ কাবুলের নারীদের একটি সাম্প্রতিক সমাবেশের ছবিকে এডিট করে সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে যা বিভ্রান্তিকর।

Updated On: 2021-09-14T13:42:07+05:30
Claim Review :   আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম গুলো বলছে, আফগানিস্তানে নারীদের শিক্ষা ব্যাহত হচ্ছে না। আমিও বলছে হা হা হা ।
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story