একাধিক পুরনো ভিডিও যুক্ত করে চলমান লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ বলে প্রচার

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, ভাইরাল ভিডিওটি ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরের শ্রমিক বিক্ষোভ সহ একাধিক ভিন্ন ভিডিও যুক্ত করে তৈরি।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে সম্প্রতি একটি ভিডিও দিয়ে দাবি করা হচ্ছে, লকডাউনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে পুলিশকে ঝাড়ু দিয়ে পেটালো নারীরা। দেখুন এমন দুটি ভিডিও লিংক এখানে এবং এখানে

গত ৭ জুলাই 'Nurul Haque Nur' নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করে বলা হয়, "লকডাউনের বিরুদ্ধে, মহিলা বিক্ষোপ মিছিলে ঝারু দিয়ে পিটাল পুলিশকে ভুয়া লকডাউন মানছে না কেউ"। দেখুন পোস্টটির স্ক্রিনশট--


ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, এটি চলমান লকডাউনে ধারণ করা ভিডিওক্লিপ নয়। মূলত ভিন্ন প্রেক্ষাপটের একাধিক বিক্ষোভের পুরনো ভিডিও যুক্ত করে এই ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে। প্রথমত, ভিডিওটির শুরু থেকে ২১ সেকেন্ড পর্যন্ত এবং ৪৫ সেকেন্ড থেকে ১ মিনিট ৪৫ সেকেন্ড পর্যন্ত রাজপথে ঝাড়ু হাতে কিছু বিক্ষোভকারীকে (অধিকাংশই নারী) পুলিশের সাথে ধস্তাধস্তি করতে দেখা যায়। দেখুন, আলোচ্য ভিডিওটির প্রথম অংশের একটি স্ক্রিনশট--


বিস্তারিত সার্চ করে দেখা যায়, ঝাড়ু হাতে বিক্ষোভকারীদের ভিডিওটি ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসের বিভিন্ন সময়ে একাধিক ফেসবুক পেজে আপলোড করা হয়েছিল। তন্মধ্যে 'বাংলার বাঘ Bengal Tiger' নামের একটি পেজে আলোচ্য ভিডিওটির একটি অংশ পাওয়া যায়, যা ২০২০ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর আপলোড করা হয়। দেখুন সেই ভিডিওটির একটি স্ক্রিনশট--


তবে সেই ঝাড়ু মিছিলটি কোন ঘটনার সেটি আলাদা করে বের করার প্রয়াস চালায়নি বুম বাংলাদেশ।

একইভাবে ভাইরাল ভিডিওটির ২২ থেকে ৪৪ সেকেন্ড পর্যন্ত একজন নেত্রীকে শ্রমিকদের একটি বিক্ষোভ সমাবেশে জ্বালাময়ী বক্তব্য দিতে দেখা গেছে। আবারো যুক্ত করা ঝাড়ু মিছিলের ক্লিপ শেষে ভিডিওটির ১ মিনিট ৪৬ সেকেন্ড থেকে ৭ মিনিট ৭ সেকেন্ড পর্যন্ত একই নেত্রীকে আগের বক্তব্যের পুনরাবৃত্তিসহ বক্তব্য দিতে দেখা যায়, যার পেছনে দাঁড়িয়ে বেশ কিছু পুলিশ সদস্য ও সামনে বসে সমাবেশে অংশ নেয়া ব্যক্তিরা তাঁর বক্তব্য শুনছেন। তাঁর বক্তব্যের বিষয়বস্তু গার্মেন্ট শ্রমিকদের বকেয়া বেতন আদায় ও শ্রমিকদের অধিকার।


বিভিন্ন কিওয়ার্ড সার্চ করে সেই ভিডিওটির মূল ভার্সনটি খুঁজে বের করতে সক্ষম হয় বুম বাংলাদেশ। 'গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র' নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে ওই নেত্রীর বক্তব্যটি পোস্ট করা হয় ২০২০ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর। ভিডিওটি সহ ওই পোস্টে বলা হয়, ১৭ সেপ্টেম্বর শ্রমিকদের পাওনা আদায়ে শ্রম মন্ত্রণালয়ে ঘেরাও কর্মসূচির একটি ভিডিও এটি। দেখুন ভিডিওটির মূল ভার্সনটির একটি স্ক্রিনশট--


এছাড়া মূলধারার একাধিক সংবাদমাধ্যমে সেই ঘেরাও কর্মসূচির খবর প্রকাশিত হয়েছিল। দেখুন এমন একটি খবর এখানে

এছাড়া ৮ মিনিট ৫৯ সেকেন্ড দীর্ঘ আলোচ্য ভিডিওটির ৭ মিনিট ৮ সেকেন্ড থেকে শেষ পর্যন্ত একজন লাল পাঞ্জাবি পরিহিত এক যুবককে বক্তব্য দিতে দেখা যাচ্ছে। এ সময় তাঁর আশেপাশে কিছু ব্যক্তিসহ পিছনে বেশ কিছু পুলিশ সদস্যকে দেখা যাচ্ছে। এই যুবকের বক্তব্যের বিষয়বস্তু হলো শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায় সংশ্লিষ্ট। দেখুন স্ক্রিনশট--


সম্পূর্ণ ভিন্ন ঘটনা ও প্রেক্ষাপটের এই ভিডিওটি ২০২০ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর আপলোড করা 'বালাউট বার্তা' নামের একটি পেজে পাওয়া গেছে। দেখুন স্ক্রিনশট--


অর্থাৎ ২০২০ সালের বিভিন্ন সময়ে ভিন্ন প্রেক্ষাপটের একাধিক বিক্ষোভ কর্মসূচির ভিডিও কাটছাট করে ইচ্ছেমত যুক্ত করে এই ভাইরাল ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে। যা চলমান লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ বলে প্রচার করা বিভ্রান্তিকর।

Claim Review :   লকডাউনের বিরুদ্ধে, মহিলা বিক্ষোপ মিছিলে ঝারু দিয়ে পিটাল পুলিশকে ভুয়া লকডাউন মানছে না কেউ।
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story