যুক্তরাজ্য সুপ্রিমকোর্ট কি বলেছে মুহাম্মদ (স.) বিশ্বের সেরা বিধানদাতা?

হযরত মুহাম্মদকে (স) 'বিশ্বের সেরা বিধানদাতা' বলেছে যুক্তরাজ্যের সুপ্রিমকোর্ট- এমন একটি বিভ্রান্তিকর খবর অনলাইনে ছড়িয়েছে।

"হযরত মুহাম্মদ (স.) বিশ্বের সেরা বিধানদাতা: যুক্তরাজ্যের সুপ্রিমকোর্ট" শিরোনামের একটি খবর সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে। সেগুলোর মধ্যে কয়েকটির লিংক দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে



ফ্যাক্ট চেক:

২০২০ সালের ৯ মার্চ muslimnews24.info নামে পোর্টালটির প্রতিবেদনের শিরোনামে "যুক্তরাজ্যের সুপ্রিমকোর্ট" লেখা হলেও প্রতিবেদনের শুরুতেই লেখা হয়েছে--

"১৯৩৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্ট হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে বিশ্বের সেরা বিধানদাতাদের একজন আখ্যা দেয়। আর সেই মুহম্মদ (স.)-ই একমাত্র ব্যক্তি যার কাছ থেকে অনুপ্রেরণা পান যুক্তরাজ্যের নারী ও সমতাবিষয়ক ছায়ামন্ত্রী নাজ শাহ এমপি। তিনি বলেছেন, নারী হিসেবে নিজের পায়ে দাঁড়াতে হজরত মুহাম্মদ (স.)-ই আমার অনুপ্রেরণা।"

অর্থাৎ, শিরোনাম ও সংবাদের ইন্ট্রোতে উল্লেখ করা অন্তত দুটি তথ্যের মধ্যে বিরোধ রয়েছে।

প্রথমত, শিরোনামে "যুক্তরাজ্যের সুপ্রিমকোর্ট" আর ভেতরে "যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্ট" লেখা হয়েছে।

দ্বিতীয়ত, শিরোনামে বলা হয়েছে, "হযরত মুহাম্মদ (স.) বিশ্বের সেরা বিধানদাতা" আর প্রতিবেদনের ভেতরে বলা হয়েছে, "হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে বিশ্বের সেরা বিধানদাতাদের একজন"। দুটি তথ্যের মধ্যে স্পষ্ট পার্থক্য রয়েছে।

ভাইরাল হওয়া খবরটিতে দাবি করা হয়েছে ব্রিটিশ এমপি নাজ শাহ বলেছেন, "মুহম্মদ (স.)-ই একমাত্র ব্যক্তি" যার কাছ থেকে তিনি অনুপ্রেরণা পান। বাস্তবে নাজ শাহ তা বলেননি। তিনি তার অনুপ্রেরণা হিসেবে আরও অনেক নারী ও পুরুষের পাশাপাশি হযরত মুহাম্মদ (স) এর নামও উল্লেখ করেছেন।

গত ৬ মার্চ নাজ শাহ তার বক্তব্যের ভিডিও নিজের টুইটাটের পোস্ট করেছেন--

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্ট কি বলেছে মুহাম্মদ (স.) বিশ্বের সেরা বিধানদাতা?

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্ট তার কোনো আদেশ বা পর্যবেক্ষণে মুহাম্মদকে (স) "বিশ্বের সেরা বিধানদাতা" বলেনি। মূল বিষয়টি হলো, যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্ট ভবনের দেয়ালে বিশ্ব ইতিহাসের এমন ১৮ জন ব্যক্তির ছবি কারুকার্য হিসেবে আঁকা রয়েছে যাদেরকে "বিশ্বের সেরা বিধানদাতা" (Lawgivers) হিসেবে মনে করা হয়। এদের মধ্যে মুহাম্মদকেও (স) স্থান দেয়া হয়েছে। এই কারুকার্যটি তৈরি সম্পন্ন হয় ১৯৩৫ সালে।

এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানুন যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্টের ওয়েবসাইট থেকে

Claim Review :  হযরত মুহাম্মদকে (স) বিশ্বের সেরা বিধানদাতা বলেছে যুক্তরাজ্যের সুপ্রিমকোর্ট
Claimed By :  Websites, Facebook Posts
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story