ভিডিওটি বাংলাদেশের নয়, পশ্চিমবঙ্গের একটি স্কুলের

১৫ আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবস হিসেবে বীরভূমের একটি স্কুলের অনুষ্ঠানের একটি খন্ডচিত্র এই ভিডিওটি।

সামাজিক মাধ্যমে একটি ভিডিও ছড়িয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি স্কুল প্রাঙ্গনে সমবেত ছাত্রীদের মাঝখানে বাংলাদেশ ও ভারতের পতাকা হাতে দুই দল ছাত্রী দাড়িয়ে আছে, আর নেপথ্যে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত বাজছে। অনেকে এই ভিডিওটি শেয়ার করে এটা বাংলাদেশের কোন এক স্কুলের বলে মনে করছেন এবং বাংলাদেশী স্কুলে ভারতীয় পতাকা উড়ানো হচ্ছে কেন- এরকম মন্তব্য করছেন। কেউ কেউ আবার বাংলাদেশের পতাকার পাশে অপেক্ষাকৃত বড় আকৃতির ভারতীয় পতাকার সমালোচনাও করছেন।

ভিডিওটি গত বছর প্রথম বাংলাদেশে ভাইরাল হলেও গত কয়েকদিন ধরে আবার নতুন করে ছড়াচ্ছে।

দেখুন এখানে


স্ক্রিনশটে দেখুন ভিডিওটিকে বাংলাদেশের বলে দাবি করা হচ্ছে-


ফ্যাক্ট চেক:

খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, অনু্ষ্ঠানের ভিডিওটি পশ্চিমবঙ্গের বীরভূমের রামপুরহাট গার্লস হাই স্কুলের। ২০১৯ সালের ১৫ আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে স্কূলটিতে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বুম বাংলাদেশ একই অনুষ্ঠানের অপর একটি ভিডিওতে দেখতে পায় যে প্রথমে ভারতের জাতীয় সংগীত বাজানোর পর এক পর্যায়ে বাংলাদেশের জাতীয় সংগীতও বাজানো হয়।
পরবর্তীতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানটিতে বাজানো বাংলাদেশের জাতীয় সংগীতটি কলকাতার শিল্পীদের সম্মিলিত কন্ঠের একটি পরিবেশনা থেকে নেওয়া যেখানে নচিকেতা ও শুভমিতার কন্ঠের অংশটি শুধু নেওয়া হয়েছে। ইউটিউবে গানটি দেখুন
এখানে
এছাড়া উপস্থিত ছাত্রীদের সম্মুখে স্কুলের পতাকাদন্ডে ভারতের জাতীয় পতাকা উড়তে দেখা যায় যা থেকে বোঝা যায় এটি ভারতেরই কোন স্কুলের ভিডিও।
উল্লেখ্য, বাংলাদেশে রামপুরহাট স্কুল নামে কোন স্কুলের খোঁজ পাওয়া যায়নি। বরং পশ্চিম বঙ্গের বীরভূমের রামপুরহাট গার্লস হাই স্কুল নামে স্কুল রয়েছে।
ফেসবুকে রামপুরহাট গার্লস হাই স্কুল নামে একটি পেজ আছে যেখানে ফেসবুকে ছড়ানো ভিডিওসহ আরো অনেক পোস্ট দেয়া আছে যাতে ধারণা করা হয় পেজটি ওই স্কুলের। যদিও এটি তাদের অফিসিয়াল পেজ কি না এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
অবশ্য ভারতের স্কুলে বাংলাদেশের পতাকা ও জাতীয় সঙ্গীত কেন এই ইস্যুতে ভারতেও ভিডিওটি গত বছর ভাইরাল হয়েছিল। সেসময় অল্ট নিউজ ও বুম লাইভ এ ব্যাপারে প্রতিবেদন
প্রকাশ করে
যেখানে স্কুল কর্তৃপক্ষ বলেন, যে ২১০৯ সালের ১৫ আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবস ও রাখীবন্ধন দিবস একই দিনে হওয়ায় তারা দুই বাংলার কৃষ্টি কালচার নিয়ে এই অনুষ্ঠানটি সাজিয়েছেন। দেখুন এখানেএখানে

Claim Review :   বাংলাদেশের স্কুলে ভারতের পতাকা হাতে ছাত্রীরা
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story