ভিডিওটি ভারতের আলোচিত শিক্ষার্থী মুসকানকে পুলিশের সম্মাননা প্রদানের নয়

বুম বাংলাদেশ দেখেছে, ভিডিওটি ২০২০ সালে ভারতের মহারাষ্ট্রে এক কিশোরীকে একদিনের প্রতীকী ডিএসপি'র দায়িত্ব প্রদানের ঘটনার।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকের একাধিক আইডি ও পেজ থেকে একজন হিজাবি তরুণীর ভিডিও পোস্ট করে দাবি করা হচ্ছে, সম্প্রতি ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কর্নাটকে কলেজে হিজাব পরা নিয়ে গেরুয়া উত্তরীয় কাঁধে 'জয় শ্রীরাম' স্লোগান দেয়া একদল তরুণের প্রতিবাদে 'আল্লাহ আকবর' স্লোগান দেয়া ছাত্রী বিবি মুসকান খানকে বিশেষ সম্মাননা দিয়েছে রাজ্য পুলিশ। ভিডিওতে পুলিশ কর্তৃক এক তরুণীকে সম্মাননা প্রদান করতে দেখা যায়। এমন কিছু পোস্ট দেখুন এখানে, এখানে এবং এখানে

গত ১০ ফেব্রুয়ারি 'Zahedul Islam' নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে ভিডিওটি পোস্ট করে ক্যাপশনের এক স্থানে লেখা হয়েছে, "মাশাআল্লাহ্ মুশকান খানের অনন্য প্রতিবাদ কাঁপিয়ে দিলো ভারতসহ সারা দুনিয়াকে। সাহসী বোনটিকে বিশেষ সম্মাননা দিলো ভারতের কর্ণাটের পুলিশ বাহিনী।" অর্থাৎ দাবি করা হচ্ছে ভিডিওতে দেখতে পাওয়া কিশোরীই 'আল্লাহ আকবর' স্লোগান দেয়া ছাত্রী বিবি মুসকান খান। পোস্টের স্ক্রিনশট দেখুন--

পোস্টটি দেখুন এখানে

ফ্যাক্ট চেক:

বুম বাংলাদেশ যাচাই করে দেখেছে, দাবিটি বিভ্রান্তিকর। মূলত ২০২০ সালে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে ১৪ বছর বয়সী কিশোরী সাহরিশ কানওয়ালকে একদিনের জন্যে প্রতীকী ডিএসপির দায়িত্ব প্রদানের ঘটনার ভিডিও এটি।

ভালো করে পর্যালোচনা করলে দেখা ভিডিওটির স্ক্রিনেই "INTERNATIONAL WOMEN DAY: 14-YEAR-OLD GIRL BECOMES DSP 'FOR A DAY' IN MAHARASHTRA BULDHANA DISTRICT" লেখা আছে।

এই সূত্র ধরে কি-ওয়ার্ড সার্চ করে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার অনলাইন সংস্করণে "International Women's Day: 14-year-old girl becomes DSP 'for a day' in Maharashtra's Buldhana" শিরোনামে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায়, যা ২০২০ সালের ৫ মার্চ মাসে প্রকাশিত হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক নারী দিবসকে সামনে রেখে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের মালাকাপুরের জেলা পরিষদ উর্দু হাইস্কুলের সাহরিশ কানওয়াল নামের এক শিক্ষার্থীকে বুলদানা জেলা পুলিশ একদিনের জন্য প্রতীকী ডিএসপির দায়িত্ব প্রদান করে। স্ক্রিনশট দেখুন--

প্রতিবেদনটি দেখুন এখানে

ভিডিওটি টাইমস অব ইন্ডিয়ার ইউটিউব চ্যানলেও আপলোড করা হয়েছে।

অর্থাৎ এই ভিডিওটিকেই বিভ্রান্তিকরভাবে ভারতের কর্নাটক রাজ্যের আলোচিত তরুণী মুসকান খানের দাবি করে প্রচার করা হচ্ছে।

সুতরাং ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে পুলিশ কর্তৃক স্কুল শিক্ষার্থীকে একদিনের জন্য প্রতীকী ডিএসপির দায়িত্ব প্রদানের ২০২০ সালের একটি ভিডিওকে সাম্প্রতিক সময়ে আলোচিত তরুণী মুসকানের দাবি করে প্রচার করা হচ্ছে সামাজিক মাধ্যমে; যা বিভ্রান্তিকর।

Claim :   মাশাআল্লাহ্ মুশকান খানের অনন্য প্রতিবাদ কাঁপিয়ে দিলো ভারতসহ সারা দুনিয়াকে। সাহসী বোনটিকে বিশেষ সম্মাননা দিলো ভারতের কর্ণাটের পুলিশ বাহিনী।
Claimed By :  Facebook post
Fact Check :  Misleading
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.